এবার দেশের সব লাইব্রেরি ডিজিটাল হবে


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- গণ গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের আওতাধীন দেশের সব লাইব্রেরিকে ডিজিটাল করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্বাবধানে গণ গ্রন্থাগার অধিদপ্তর এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে। মঙ্গলবার সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এ উপলক্ষে গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর ও ব্রিটিশ কাউন্সিল-এর মধ্যে এক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।bookসংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের উপিস্থিতিতে ব্রিটিশ কাউন্সিলের কান্ট্রি ডিরেক্টর বারবারা উইকহ্যাম এবং গণ গন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আশীষ কুমার সরকার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। আজ থেকে পাঁচ বছরের জন্য এ সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়।

বিল এ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন (বিএমজিএফ)-এর অর্থায়নে ব্রিটিশ কাউন্সিলের বাস্তবায়নাধীন ‘লাইব্রেরিস আনলিমিটেড’ প্রকল্পের অধীনে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে।

প্রাথমিক পর্যায়ে ১৮ মাসব্যপি পাইলট প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এ পর্যায়ে গণ গন্থাগার অধিদপ্তরাধীন ২৫ টি এবং অন্যান্য (যেমন: শিশু একাডেমি লাইব্রেরি, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ও এনজিও সংশ্লিষ্ট) পাঁচটি সহ মোট ৩০টি গ্রন্থাগারকে ডিজিটাইজড করা হবে।

এ পাইলট প্রকল্পে চারটি ক্ষেত্রে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। এগুলো হলো প্রচার, সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের বিদেশে শিক্ষা সফর/প্রশিক্ষণ, প্রত্যাশিত লাইব্রেরির ডিজাইন করা এবং আধুনিক প্রযুক্তিগত সরঞ্জামের সমন্বয়ে তা বাস্তবায়ন, গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পেশাগত জ্ঞান বৃদ্ধি করা এবং প্রকল্প মনিটরিং ও মূল্যায়ন ইত্যাদি।

বিএমজিএফ-এর উদ্ধৃতি দিয়ে মন্ত্রণালয় জানায়, দ্বিতীয় পর্যায়ের কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য সম্ভাব্য ব্যয় ২৪ কোটি ২৮ লাখ ধরা হয়েছে বলে ব্রিটিশ কাউন্সিল মৌখিক ভাবে জানিয়েছে।