🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ৷

‘বঙ্গবন্ধু হত্যায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের যেকোনো মূল্যে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে’


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘যেকোনো মূল্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।’

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর নিবন্ধন পরিদপ্তর মাঠে ‘জঙ্গিবাদ রুখবোঃ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বো’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আইন বিচার ও সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রণালয়।
মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের একজন এস বি এম নূর কানাডায় আছেন। ওই দেশের আইনে মৃত্যুদণ্ডে সাজা দেওয়ার কোনো বিধান নেই। আবার মৃত্যুদণ্ডের আসামি ওই দেশে আশ্রয় নিলে তাকে ফিরিয়েও দেয় না। সর্বোপরি আমরা আইনের শিকলে বন্ধি হয়ে আছি। তারপরো তাকে এনে দেশে রায় কার্যকর করতে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

তিনি বলেন, অপর এক হত্যাকারী এ এম রাশেদ চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। তাকে ফিরিয়ে আনতে আমাদের কূটনৈতিক তৎপরতা অব্যাহত আছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশে নিযুক্ত সে দেশের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিক্যাট বিচার বিভাগের সঙ্গে আলাপ করেছেন।

ainmontri

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি চারণ করে তিনি বলেন, তিনি (শেখ মুজিব) নিজের কথা চিন্তা না করে দেশ ও জাতীর কথা চিন্তা করতেন। জাতীর জন্য তিনি সোনার বাংলার গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। এর জন্য কাজও শুরু করছিলেন। ছোট থেকে বড়- সব বিষয়ে তিনি চিন্তা করতেন। তার ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মনোভাবই বাংলাদেশকে স্বাধীনতা ও বিশ্বমহলে সম্মানের স্থান পেতে সহযোগীতা করেছে। কারণ তিনি ছিলেন আপোষহীন এক নেতা।

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ বাস্তবায়ন করতে হলে তার সময় প্রণীত সংবিধাণ অনুসরণের আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, তার (বঙ্গবন্ধু) জীবন অনুসরণ করলে দেশ ও দেশের মানুষের উন্নয়ন সম্ভব। কারণ ১৩ বছর কারা নির্যাতনের শিকার হয়েও তিনি স্বাধীনতার জন্য বিন্দুমাত্র আপোষ করেননি। তিনি বিশ্বাস করেছিলে দেশ স্বাধীন হবে, পাকিস্থানেরর অত্যাধুনিক অস্ত্র, ট্যাংকার বাঙালিদের থামাতে পারবে না। বাস্তবে ঠিক তেমনটাই হয়েছে। তাই আমাদেরকে তার জীবন অনুসরণ করতে হবে।

যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে তারা বাংলাদেশকে হত্যা করেছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, হত্যাকারীরা জানতো না বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ আর বাংলাদেশ মানে বঙ্গবন্ধু।

আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মোহাম্মদ জাহিরুল হকের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান ও নিবন্ধন পরিদপ্তরের মহা পরিচালক খান মো. জহিরুল হক প্রমুখ।