মাইক্রোবাস চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জ শহরের ছবিঘর সিনেমা হলের পিছনে তালুকদার ভিলা থেকে মঙ্গলবার সকালে ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় কাশেম দেওয়ান(৩২) নামের এক গাড়িচালকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ ভাড়া বাসায় গিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় কাশেমকে উদ্ধার করে। এ সময় নিহত কাশেমের স্ত্রী বাড়িতেই ছিলেন। সদর থানা গেটের ১০০ গজ দূরে বাড়ীটির অবস্থিত ছিল। বাড়ীটি ছিল মৃত-মনির হোসেন তালুকদারের বাড়ী।photo hotta

স্থানীয় অন্যান্য ভাড়াটিয়া ও প্রতিবেশীদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, নিহত মাইক্রোবাস চালক কাশেম দেওয়ান সদর উপজেলার দক্ষিন কেওয়ার গ্রামের আলী আহম্মেদের ছেলে।

এলাকাবাসী আরো জানায়, স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে ২ মাস পূর্বে স্ত্রী পলি বেগমকে নিয়ে এ বাসায় ভাড়াটিয়া হিসাবে উঠেন। নিহত কাশেম শেখ এর স্ত্রী পলি বেগমের এর আগে আরো তিনটি বিবাহ হয়েছে। আগের স্বামীর ঘরে ২ টি কন্যা সন্তান ছিল তাদেরকে বিবাহ দেওয়া হয়েছে। কাশেমের সাথে প্রেম করে বিবাহ করেছিল বলে জানিয়েছে আগে মাঠপাড়া এলাকায় যে বাসায় ভাড়া থাকিত সে বাসার একাধিক ভাড়াটিয়া।

স্থানীয়রা আরো জানায়, দীর্ঘদিন ধরে পলি বেগম নানা অপকর্মের সাথে জড়িত ছিল এবং পলি বেগম কল গার্ল হিসাবেও এলাকায় ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। নিহত কাশেম বাসা থেকে চলে গেলে তার স্ত্রী অন্য পুরুষদের সাথে সময় কাটাতো এই নিয়েও তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো বলে জানান, জগদ্বাত্রীপাড়া এলাকার একাধিক ভাড়াটিয়া। খুন হওয়ার বিষয়ে কেউ বলছেন নিজেই স্ত্রীর সাথে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছে। আবার কোন কোন ভাড়াটিয়া বলছেন স্ত্রীর অপকর্মের প্রতিবাদ করায় স্ত্রী তাকে মেরে ফেলেছে। এটি কি হত্যা? নাকি আতœ-হত্যা এ নিয়ে এলাকাবাসীর মনে নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী জানান, সুরতহাল বিশ্লেষন কালে কাশেমের গলায় ফাঁসের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে এটি আতœ-হত্যা। ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরে বাকীটা জানা যাবে।