🕓 সংবাদ শিরোনাম

ফিরে দেখা, ১৯৭১- ‘মুক্তিযুদ্ধের এই দিনে’দু’সপ্তাহের মধ্যেই শিশুদের কোভিড টিকাকরণ, সিদ্ধান্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নেবাড়িতে লুকিয়ে রাখা ৪৭ ভরি স্বর্ণসহ তিন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ আটকফিরে দেখা; ইতিহাসে আজকে এই দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা প্রবাহশীতে অপরূপ লাল শাপলার ডিবির হাওরময়মনসিংহ শহরের ভেতরেই রেলক্রসিং: প্রতিদিন ৮ ঘন্টা যানজটবিজয়ের ৫০ বছরে ওয়ালটন ল্যাপটপ ও এক্সেসরিজে ৫০% পর্যন্ত ছাড়মাইকিং করে ২গরু জবাই করল পরাজিত প্রার্থী, দাওয়াতে এলো না কেউ!সুনামগঞ্জে আফ্রিকা ফেরত প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকাতদন্ত কর্মকর্তাসহ ৬৫ জনের সাক্ষ্য-জেরায় সাক্ষ্যপর্ব সমাপ্ত

  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

সহজেই আসবে রাতের ঘুম :)


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ১৬, ২০১৬ লাইফস্টাইল

লাইফ স্টাইল ডেস্কঃ কেউ ইচ্ছা করেই দেরিতে ঘুমাতে যান। আবার কারও কারও ঘুমই আসতে চায় না। যে কারণেই হোক না কেন অনেকেই রাতে ভালো ঘুমাতে পারেন না। অথচ নিজে একটু সচেতন হলেই কিন্তু রাতে ভালো ঘুমানো সম্ভব। রাতের ঘুম উধাও হওয়ার কারণ লুকিয়ে থাকতে পারে দৈনন্দিন কিছু অভ্যাসের মধ্যেই। দীর্ঘদিন ধরেই হয়তো আপনি এ সমস্যায় ভুগছেন। কিন্তু সমস্যার সূত্রটা ধরতে পারছেন না। প্রতিদিনের যে সব অভ্যাস আপনার ঘুম কেড়ে নেয় জেনে নিন সে সম্পর্কে। ঘুমের ওষুধ না খেয়ে কেবল জীবনযাপনের ধরন পাল্টেই রাতে শান্তির ঘুমে সহায়ক হতে পারে এই পরামর্শ। যেমন খাওয়ায় অনিয়ম, মুখের পরিচ্ছন্নতা, ফ্রিজের ঠান্ডা পানি, ধূমপান। সে যাই হোক , এবার জেনে নিন ভালো ঘুম আসার জন্য কি কি অভ্যাস তৈরি করতে হবে?

১। প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমুতে যান এবং ঘুম থেকে উঠার অভ্যাস গড়ে তুলুন। প্রতিদিনকার রুটিন এমনভাবে তৈরি করুন যাতে কাজ একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই শেষ হয়। এর পরই ঘুমুতে যান। ঘুম না আসতে চাইলে হালকা মিউজিক শুনুন অথবা একটি বই পড়ুন। ঘুম চলে আসবেই।

২। বেশিরভাগ মানুষই বিকালের দিকে একটু ঘুমিয়ে থাকে। এটা ঠিক নয়। রাতে ভালো ঘুমাতে চাইলে দিনের বেলা না ঘুমানোই ভালো।

৩। অনেকেই মনে করেন, মদ খেলে ভালো ঘুম হয়। কিন্তু এটা সত্যি নয়। কারণ প্রথম দিকে ভালো ঘুম হলেও পরে একটা তন্দ্রাভাব চলে আসে। ফলে ঘুমটা কখনই গভীর হয় না। তাই ভালো ঘুমাতে চাইলে বিছানায় যাওয়ার কমপক্ষে ৪-৬ ঘণ্টা আগে থেকেই মদ পরিত্যাগ করুন।

৪। বিছানায় যাওয়ার ৪-৬ ঘণ্টা আগে থেকেই কফি এড়িয়ে চলুন। ভালো ঘুমাতে চাইলে চা এবং সোডা ও চকলেটজাতীয় যে কোনো পাণীয় থেকেও নিজেকে বিরত রাখুন।

৫। প্রতিদিন বিকেলের দিকে ব্যায়াম করুন। এতে রাতে ভালো ঘুম হবে। তবে বিছানার যাওয়ার আগ মুহূর্তে কখনই ব্যায়াম করা উচিত নয়। এতে ঘুম ভালো তো হবেই না; বরং ঘুমে সমস্যা হবে। এমনকি বিছানায় যাওয়ার ২ ঘণ্টা আগেও ব্যায়াম করা ঠিক নয়।

৬। শোয়ার বিছানা নরম ও আরামদায়ক না হলে সহজে ঘুম আসে না। তাই রাতে আরামদায়ক বিছানা ব্যবহারের কোনো বিকল্প নেই।

rater-ghum৭। বিছানা শুধু ঘুমের জন্যই নির্দিষ্ট করে রাখুন। বিছানায় বসে টিভি দেখা, আড্ডা দেওয়া, খাবার খাওয়া, বুকে ভর দিয়ে ল্যাপটপ ব্যবহার বন্ধ করুন। তাহলে বিছানায় শোয়ার সাথে সাথেই ঘুম এসে যাবে।

৮। শোয়ার আগে এক গ্লাস হালকা গরম দুধ খেতে পারেন। কারণ দুধের ট্রিপটোফ্যান উপাদানটি ভালো ঘুমাতে সাহায্য করে। এছাড়া কলা খেলেও রাতে ভালো ঘুম হয়।

৯। ঘুমাতে যাওয়ার আগে যোগব্যায়াম ও গভীরভাবে শ্বাস নেওয়ার মতো ব্যায়াম করতে পারেন। এগুলো আপনাকে উদ্বিগ্নতা ও দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি দিবে। ফলে সহজেই রাতে ভালো ঘুম হবে।

১০। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে গোসল করে নিতে পারেন। যদি সম্ভব না হয় তবে ঘাড়, মুখ, হাত-পা পানি নিয়ে মুছে নিতে পারেন। এতে শুধু ক্লান্তিই দূর হবে না, ভালো ঘুমও হবে।

১১। বিছানার শুতে যাওয়ার পর টেলিভিশন দেখার অভ্যাস ভালো নয়। এটিই মানুষকে অনেক রাত পর্যন্ত জেগে থাকতে সাহায্য করে। কাজেই ভালো ঘুমাতে চাইলে শুয়ে শুয়ে টিভি না দেখাই ভালো।