লালমনিরহাটের ২৬টি ইউনিয়নে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ৫০হাজার পরিবার


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: সম্প্রতি লালমনিরহাট জেলার ৫ উপজেলার ২৬ টি ইউনিয়নে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মোট ৪৯ হাজার ৮ শত ৬০ টি পরিবার। এরমধ্যে নদী ভাঙ্গনের শিকার হয়েছে ৭শত ৯০টি পরিবার। জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা অফিস সুত্রে জানা গেছে, বন্যায় লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর, মোগলহাট, কুলাঘাট, বড়বাড়ী, গোকুন্ডা ও খুনিয়াগাছ ইউনিয়নে ২৯ হাজার ২শত ৭০ টি পরিবার।9572

আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, পলাশী ও দুর্গাপুর ইউনিয়নে ৩ হাজার ৮ শতটি পরিবার। কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী ও তুষভান্ডার ইউনিয়নে ২ হাজার ২ শত ৫০ টি পরিবার। হাতীবান্ধার গন্ডিমারী, সিন্দুনা, সিংগীমারী, পাটিকাপাড়া, ডাওয়াবাড়ী, সানিয়াজান, টংভাঙ্গা, বড়খাতা ও ফকিরপাড়া ইউনিয়নে ১১ হাজার ৫ শত ৯০ টি পরিবার এবং পাটগ্রামের দহগ্রাম, জোংড়া, শ্রীরামপুর, বুড়িমারী, জগৎবেড় ও পাটগ্রাম ইউনিয়নে ২হাজার ৯ শতটিসহ ২৬ টি ইউনিয়নে মোট ৪৯ হাজার ৮ শত ৬০ টি পরিবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হলেও ৭শত ৯০টি পরিবারের ভিটে-বাড়ী নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা একেএম ইদ্রিস আলী বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ও নদী ভাঙ্গনের শিকার পরিবারগুলোর মাঝে আগষ্ট মাসে ৮শত মেট্রিক টন চাল, নগদ ২৬ লাখ ৫০হাজার টাকা ও ২ হাজার ৭শত ৫০ প্যাকেট শুকনা খাবার বিতরন করা হয়েছে। দুর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব লালমনিরহাটের বন্যা কবলিত এলাকাগুলো মনিটরিং করছেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারন অদিদপ্তরের উপ-পরিচালক সারওয়ারুল হক জানান, এবারের বন্যায় জেলার ৫ উপজেলায় ১ শত ১৪ হেক্টর জমির বীজতলা, চলতি আমন ১ হাজার ৯ শত ৭৩ হেক্টর ও ৩৫ হেক্টর জমির মৌসুমী সবজি ক্ষেত পানিতে ডুবে যায়।