🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

গৌরীপুরে কলিকাতা হারবাল মেডিকেল-এ চিকিৎসার নামে চলছে চরম প্রতারণা


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

নিজস্ব প্রতিনিধি: দাউদকান্দির গৌরীপুরে কলিকাতা হারবাল মেডিকেল-এ চিকিৎসা নামে চলছে চরম প্রতারণ। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পার্শ্বে উপজেলার সর্বাধিক ব্যস্ততম স্থান গৌরীপুর বাসস্টেশন সংলগ্ন কলিকাতা হারবাল মেডিকেল নামের একটি ভূয়া প্রতিষ্ঠান প্রায় ১ বছর যাবৎ চরম প্রতারণা করে চলছে সাধারণ মানুষদের সঙ্গে। সরকারের কোন রকম অনুমোদন ব্যতিরেকেই এই প্রতি প্রতিষ্ঠানটি নির্বিঘেœ চিকিৎসা সেবার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।Daudjkandi photo{2}--17-8-16

ভোক্তভুগি স্থানীয় কয়েকজন রুগির অভিযোগের ভিত্তিতে ১৬ আগস্ট সকাল ১১টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কলিকাতা হারবাল মেডিকেল নামের প্রতিষ্ঠানে ২জন ডাক্তার অবস্থান করছেন। তারা হলেন, ডাঃ মোঃ ইয়াকুব হোসেন {৩১} ও ডাঃ মোঃ হারুন অর রশিদ মামুন {২৮} নোয়াখালির সেনবাগে তাদের গ্রামের বাড়ি। এ দুই জন ডাক্তারই এখানে সেবা দিয়ে থাকেন রোগিদের!

প্রতিবেদক তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা জানতে চাইলে, ডাঃ মোঃ ইয়াকুব হোসেন জানান, তিনি এসএসসি পাস করেছেন এবং এ পেশায় দীর্ঘদিন ধরে রয়েছেন। অপরজন ডাঃ মোঃ হারুন অর রশিদ মামুন জানান, তিনি অষ্টম শ্রেণি পাস করে হারবাল চিকিৎসা শাস্ত্রে ১ বছরের কোর্স করেছেন!

এ মেডিকেল থেকে কি ধরনের চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয় তা জানতে চাইলে তারা জানান, বিশেষ করে যৌন রোগ ও মোটাতাজা করণসহ নারীদেহের জটিল রোগ নিরাময়ে তাদের চিকিৎসার কোন জুরি নেই!

তাদের চিকিৎসা সেবা এবং মেডিকেলের বৈধ কোন কাগজপত্র আছে কিনা জানতে চাইলে তারা বলেন, এসব বিষয়ে একমাত্র মালিক পক্ষই বলতে পারবেন। আমাদের কাছে কোন কাগজপত্র নেই। মালিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে একজন মালিক মোবাইলে বলেন, তিনি এখন ব্যস্ত আছেন। মোবাইল নাম্বার দিয়ে গেলে পরে তিনি যোগাযোগ করবেন বলে জানান।

ভুক্তভোগিদের একজন মোঃ মিজান মিয়া জানান,‘ এই মেডিকেলে গিয়েছিলাম যৌন সমস্যা নিয়ে। তারা ৩ হাজার টাকার বিনিময়ে যেসব ওষধপত্র দিয়েছেন তা কোন কাজই করে নাই। বরং আমার শরীর দুর্বল হয়ে গেছে তাদের ওষধ খেয়ে।

সারমিন আক্তার নামের এক মহিলা জানান, ‘রিক্সা দিয়ে বাড়ি যাওয়ার সময় তাকে একটি লিফলেট ধরিয়ে দেন রাস্তায় দাড়িয়ে থাকা একব্যক্তি। এ লিফলেট পড়েই তিনি ওই মেডিকেলে যান। তিনি আরো বলেন, ‘তাদের কাছ থেকে আড়াই হাজার টাকার ওষধ খেয়েছি, কোন রকম ফলাফল পাইনি আমি। মানুষ ঠকানোর ব্যবসা করে তারা। আমি আর কখনও ওইখানে যাবো না।’ কলিকাতা হারবাল মেডিকেলের ব্যাপারে এমন অভিযোগ করেন আরো অনেকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন সমাজকর্মী আক্ষেপ করে বলেন,‘এই কলিকাতা হারবাল মেডিকেল চিকিৎসা সেবার নামে দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গৌরীপুর বাসষ্টেশন, গৌরীপুর-হোমনা সড়ক, গৌরীপুর-মতলব সড়কের প্রবেশ পথে তরুণ, কোমলমতি স্কুল শিক্ষার্থীসহ নানা বয়সী লোকজনদের হাতে বেশ কিছু অশ্লীল বাক্য সংবলিত লিফলেট ধরিয়ে দেন। যা বরাবরই পথচারিদের বিব্রত করে এবং অনেকেই লজ্জিত হন তাদের এই কর্মকান্ডে’। তিনি প্রশাসনের বরাবরে প্রশ্ন ছুড়ে দেন যে, দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স{গৌরীপুর} এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে এই প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে চিকিৎসা সেবার নামে এমন প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছে বছরের পর বছর’?