• আজ সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৬ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

ঢাকায় পৌঁছেছে ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা দল, রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড সিরিজের ভাগ্য


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- সম্প্রতি গুলশানের হলি আর্টিজান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার পর থেকে ইংল্যান্ড দলের বাংলাদেশ সফরকে ঘিরে এক ধরনের অনিশ্চয়তা। এ কারণে ঢাকার নিরাপত্তা অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে চারদিনের সফরে ইংল্যান্ডের নিরাপত্তা প্রতিনিধি দল এখন ঢাকায়। বুধবার ১১টা ৫৫ মিনিটে জেট এয়ারওয়েজের একটি বিমানে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে নামে প্রতিনিধি দলটি। এই দলের সদস্য সংখ্যা তিন জন। eng-vs-ban-odiএরা হলেন- ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) নিরাপত্তা উপদেষ্টা রেগ ডিকসন, প্রফেশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নির্বাহী ডেভিড লিথারডেল এবং ইসিবির ক্রিকেট অপারেশন্সের পরিচালক জন কার।

মূলত রুটিন পরিদর্শনের অংশ হিসেবেই বাংলাদেশে এসেছেন ইসিবির এই নিরাপত্তা দল। বিমানবন্দরে নেমেই প্রতিনিধি দলটি হোটেল রেডিসনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। সেখানে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে তারা তাদের পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করবেন।

সফরে তারা বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড দ্বিপাক্ষিক সিরিজের সার্বিক নিরাপত্তা অবস্থা পর্যবেক্ষণ করবেন। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ক্রিকেটারদের থাকার হোটেল, হোটেল থেকে মাঠে যাওয়ার রাস্তা, মাঠ ইত্যাদি স্থানের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ করবেন।

বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, চারদিনের এই সফরের প্রথম দিনে বুধবার দুপুর থেকেই প্রতিনিধি দলটি অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও আমেরিকান দূতাবাসে যাবে। সেখানে বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলবে তারা। দ্বিতীয় দিন মন্ত্রণালয়ে বৈঠক করবে তিন সদস্যের এই প্রতিনিধি দল। সেখানে উপস্থিত থাকবেন র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবি’র মহাপরিচালক এবং ডিজিএফআই-এর কর্মকর্তারা।

তৃতীয় দিনে তারা চট্টগ্রামে অবস্থান করবে। সেখানে মাঠ ও নিরপত্তা অবস্থা পর্যবেক্ষণ করবে প্রতিনিধি দলটি। চতুর্থ দিনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবির) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সঙ্গে বৈঠক করবে এই নিরাপত্তা পর্বযবেক্ষক দলটি। এর মধ্যেই তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও দেখা করবেন বলে জানা গেছে। যদিও সে সূচি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

উল্লেখ্য, তিন সদস্যের নিরাপত্তা প্রতিনিধি দলের রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড সিরিজের ভাগ্য। গত মাসে গুলশান ও শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলার পর পাল্টে যায় দৃশ্যপট। তারই ছোঁয়া লাগে দেশের ক্রিকেটে। নিরাপত্তা শঙ্কায় বাংলাদেশ সফরে ইংল্যান্ড আসবে কিনা তা নিয়ে দেখা দেয় চরম অনিশ্চয়তা। যদিও বিসিবি এখন পর্যন্ত এ সিরিজ নিয়ে আশাবাদী।