• আজ বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

আবার আওয়ামী লীগে ফিরছেন মনজুর আলম !


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর – চট্টগ্রামের এক সময়ের আলোচিত মেয়র আলহাজ্ব এম মনজুর আলম। ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওয়ার্ড কমিশনার, মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ শিষ্য।

বিএনপিতে যোগ দিয়ে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে হারিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। বিএনপিতে যোগ দিয়ে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ পেয়েছিলেন। এবার বিএনপির নতুন কমিটিতে জায়গা হয়নি চট্টগ্রামের প্রাক্তন এই মেয়র মনজুর আলমের।

এখন তিনি চট্টগ্রামের রাজনীতিতে নতুন করে আলোচনায়। গুঞ্জন শুরু হয়েছে মহিউদ্দিন চৌধুরীর হাত ধরে তিনি আবার আওয়ামী লীগে ফিরে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগে ফিরছেন কি-না এমন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিলেও মনজুর আলম বলেছেন, তিনি তো বঙ্গমাতা-বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই আছেন। তিনি এখন সামাজিক কর্মকাণ্ডে ব্যস্ত।

monjurul-alam

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে মনজুর আলম নিজের প্রতিষ্ঠিত ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের’ মাধ্যমে শোক দিবসের অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেন।

আওয়ামী লীগে ফিরে যাওয়া প্রসঙ্গে এম মনজুর আলম বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিনি। তবে আমি সব সময় বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই ছিলাম। এখনো আছি।’

তিনি জানান, বঙ্গবন্ধুর নামে তিনি একটি স্কুলও প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন নিয়ে কাজ করছেন। চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, প্রাক্তন মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে রাজনৈতিক গুরু উল্লেখ করে মনজুর আলম বলেন, ‘তিনি আমার নেতা। উনি আমার ব্যাপারে আগ্রহ দেখালে এটি আমার কাছে বড় পাওয়া হবে।’

মনজুর আলমকে আওয়ামী লীগে ফিরিয়ে আনতে চাওয়া প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এটা বঙ্গবন্ধুর দেশ। এদেশের সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে থাকবে এটাই আমার চাওয়া। মনজুর ফিরতে চাইলেই ফিরতে পারবে। আমি চাই বাংলাদেশের সবাই আওয়ামী লীগে থাকুক।’

আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর পদে থেকে ২০১০ সালে বিএনপিতে যোগ দিয়েই বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে মহিউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মনজুর আলম। এই বছরের ১৭ জুন অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) নির্বাচনে প্রায় এক লাখ ভোটের ব্যবধানে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন তিনি।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল বিএনপির প্রার্থী হিসেবে চসিক নির্বাচনে অংশ নিলেও নির্বাচনের দিনে ভোট বর্জন করে রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার ঘোষণা দেন মনজুর আলম।