🕓 সংবাদ শিরোনাম

ঢাকার পর শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর হচ্ছে চট্টগ্রামেও‘ভাই কবরে ,খুনি কেন বাহিরে’ শ্লোগানে শিক্ষার্থীদের কফিন মিছিলশিশুকে ডায়াবিটিস থেকে দূরে রাখতে কী কী সতর্কতা অবলম্বন করবেনদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াকে তৈরি থাকার বার্তা দিল ”হু”বুড়িগঙ্গায় ’সাকার ফিশ’র দখলে, হুমকিতে দেশীয় মাছরোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির থেকে ধারালো অস্ত্রসহ আটক-৫করতোয়ার তীরে নিথর পড়ে ছিলো মস্তকহীন নবজাতক!গাজীপুরে দুই শিশুকে ‘হত্যার’ পর ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যার চেষ্টা মা’য়ের!ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ: জাহাজ চলাচল বন্ধ; সহস্রাধিক পর্যটক আটকা সেন্টমার্টিনেআখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো নীলফামারীর তিনদিন ব্যাপী ইজতেমা

  • আজ রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

সুন্দরগঞ্জে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আসামী মাওলানা আব্দুল লতিফ গ্রেফতার


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ রংপুর

গাইবান্ধা থেকে আঃ খালেক মন্ডলঃ
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ অভিযান চালিয়ে মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুানালের দেয়া গ্রেপ্তারী পরোয়ানা ভুক্ত আসামী মাওলানা আব্দুল লতিফকে গ্রেফতার করেছে। জানা যায়, বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে থানা অফিসার ইনচার্জ ইসরাইল হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এ অভিযান চালান। এতে উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের কিশামত সদর নামক চরের আনছার আলীর বাড়ি থেকে আব্দুল লতিফকে গ্রেপ্তার করেন।

lotifগ্রেফতারকৃত উপজেলার পাঁচগাছী শান্তিরাম গ্রামের মৃত ফইম উদ্দিন ব্যাপারীর ছেলে ও খামার পাঁচগাছী দাখিল মাদ্রাসার সদ্য অবসরপ্রাপ্ত সহকারী সুপারিন্টেন্ডেন্টন। চলতি বছরে উক্ত ট্রাইব্যুনাল মাওলানা আব্দুল লতিফ, জামায়াতের সাবেক এমপি মাওলানা আব্দুল আজিজসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় গ্রেপ্তারী পরোয়ানাজারী করার পর থেকে সে উক্ত চরে আত্মগোপনে ছিল। সে স্বাধীনতা যুদ্ধকালে মাওলানা আব্দুল আজিজের সহচর হিসেবে কাজ করেছে বলে থানা অফিসার ইনচার্জ ইসরাইল হোসেন জানান।

গাইবান্ধা হোমিও রিসার্স এন্ড ইন্সটিটিউটের পরিচালকের কারাদন্ড

অনুমোদিত ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ওষধ তৈরির দায়ে গাইবান্ধা হোমিও রিসার্স এন্ড ইন্সটিটিউটের পরিচালক আহসান হাবীব শাহিনকে (৫০) ছয় মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাফিউল আলম এ দন্ডাদেশ দেন। দন্ড প্রাপ্ত আহসান হাবীব শাহিন সদর উপজেলার পূর্বপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও গাইবান্ধা হোমিও রিসার্স এন্ড ইন্সটিটিউটের পরিচালক।
arrestনির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাফিউল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ৫০ বছরের পুরাতন এ প্রতিষ্ঠানটি অনুমোদন না নিয়েই বিভিন্ন প্রকার হোমিও ঔষুধ তৈরি করে আসছিল। এছাড়া অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে এখানে এসব ঔষুধ তৈরি করা হতো। এমন খবরে অভিযান চালিয়ে পরিচালককে ছয় মাসের কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ছবি সংযুক্ত

জনসচেতনতার মাধ্যমে সরকার জঙ্গি তৎপরতার প্রতিরোধ গড়তে সক্ষম হয়েছে
——–হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি

জেলা আইন শৃংখলা কমিটির উপদেষ্টা জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি বলেন, আগষ্ট মাস শোকের মাস। এই মাসে জঙ্গি তৎপরতা প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকারি উদ্যোগে ব্যাপক তৎপরতা শুরু করা হয়েছে বলেই আগষ্ট মাসে দেশকে অস্থিতিশীল করতে জঙ্গিরা ব্যর্থ হয়েছে। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধুর নির্দেশিত পথেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন ঠিক তখনই জঙ্গিরা পরিকল্পিত হামলা চালিয়ে উন্নয়নকে ব্যাহত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছিল। যার বিরুদ্ধে জনসচেতনতার মাধ্যমে সরকার প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।
বুধবার গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে আইন শৃংখলা কমিটিতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম, পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, সিভিল সার্জন ডাঃ নির্মলেন্দু চৌধুরী, গোবিন্দগঞ্জ পৌর মেয়র আতাউর রহমান সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রশিদা বেগমসহ জেলা পর্যায়ের সকল বিভাগীয় কর্মকর্তা, সাত উপজেলার নির্বাহী অফিসার, র‌্যাব গাইবান্ধা ক্যাম্পের ইনচার্জ, জেলার অন্যান্য সদস্যরা।
সভায় গাইবান্ধা জেলার সীমাহীন বিদ্যুৎ বিভ্রাট, আইন শৃংখলা পরিস্থিতি, জঙ্গি প্রতিরোধ, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন, পবিত্র ঈদুল-আযহা উদযাপনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

গাইবান্ধায় ঈদুল আযহা উদযাপনে বিশেষ তৎপরতা

দেশে অব্যাহত জঙ্গি তৎপরতার পরিপ্রেক্ষিতে আসন্ন ঈদুল আযহা উদযাপন উপলক্ষে গাইবান্ধা জেলায় বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থাসহ কতিপয় বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই আইন শৃংখলা কমিটির সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওই কমিটির উপদেষ্টা জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি।
সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, রাস্তার পাশে ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোন গরুর হাট বসতে দেয়া হবে না। প্রতিটি গরুর হাটে যাতে রোগাক্রান্ত পশু বিক্রয় হতে না পারে সেজন্য পশু সম্পদ বিভাগের বিশেষ টিম দায়িত্ব পালন করবে। বাস টার্মিনালে বহিরাগত যাত্রীদের জন্য সকল বাসের কাউন্টারগুলো সারারাত খোলা থাকবে। এছাড়া বাস টার্মিনালে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থাসহ মটর মালিক সমিতির তত্ত্বাবধানে যাত্রী ছাউনি এবং একটি পুলিশ কন্ট্রোল রুম চালু থাকবে। জেলা ও উপজেলা সদরের মার্কেটগুলোতে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, যৌন হয়রানীসহ অন্যান্য অপতৎপরতা প্রতিরোধে র‌্যাব ও পুলিশের বিশেষ নিরাপত্তা টহল অব্যাহত থাকবে। ঈদের দিন এবং ঈদের আগে ও পরের দিন গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতাল খোলা থাকবে এবং বিশেষ মেডিকেল টিম চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করবে।
এদিকে পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন বলেন, গাইবান্ধা পৌর এলাকায় রেল ষ্টেশনের পশ্চিম পার্শ্বে (নেংটা গোডাউন) এইবারই প্রথম পৌরসভার তত্ত্বাবধানে ঈদুল আযহা উপলক্ষে পশুরহাট বসবে। এছাড়া গাইবান্ধা পৌর এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে ৩টি করে নির্ধারিত পশু জবাই কেন্দ্র থাকবে। পশু কোরবানীর বর্জ্য পরিস্কারের ক্ষেত্রেও পৌরসভার বিশেষ টিম এবার কর্মতৎপর থাকবে বলেও তিনি উলে¬খ করেন।

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অন্যতম কারণ গাইবান্ধা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের নানা সমস্যা ও সংকট

গাইবান্ধা জেলায় সীমাহীন বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অন্যতম কারণ হচ্ছে জেলার বিদ্যুৎ বিভাগের বিরাজমান নানা সমস্যা ও সংকট। বুধবার জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভায় গাইবান্ধা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের উপ-সহকারি প্রকৌশলী মিজানুর রহমান এ কথা বলেন। জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ওই কমিটির উপদেষ্টা জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি।
বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের উপ-সহকারি প্রকৌশলী মিজানুর রহমান জানান, গাইবান্ধা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগে কর্মকর্তার পোষ্ট রয়েছে ১১ জন। সেখানে ৫টি পদ এখন শূন্য। ৬ উর্ধতন কর্মকর্তা গোটা বিতরণ এলাকার দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ৫২ জন সাধারণ স্টাফের মধ্যে স্টাফ রয়েছে মাত্র ১৮ জন। এতো স্বল্প সংখ্যক স্টাফ দিয়ে গোটা বিতরণ এলাকার বিদ্যুৎ বিভ্রাট তাৎক্ষনিকভাবে নিরসন করা সম্ভব হচ্ছে না।
জেলার প্রতিটি ফিডারের আওতায় ৪০ থেকে ৪২টি বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইন চালু থাকায় একটি ফিডারের আওতায় কোথাও বিদ্যুৎ বিভ্রাট সংঘটিত হলে গোটা ফিডার এলাকায় সরবরাহ লাইনে বিদ্যুৎ বন্ধ করে প্রয়োজনীয় মেরামত কাজ সম্পন্ন করতে হয়। এজন্য কোথাও বিদ্যুৎ বিভ্রাট হলে ফিডারভূক্ত গোটা এলাকার বিদ্যুৎ গ্রাহকদেরই দুর্ভোগ পোহাতে হয়। সেজন্য ফিডারগুলোকে আরও ছোট করা দরকার এবং গোটা গাইবান্ধা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের দুটি ডিভিশনে ভাগ করা উচিত বলে উপ-সহকারি প্রকৌশলী মিজানুর রহমান উলে¬খ করেন।
গাইবান্ধায় চাহিদা মোতাবেক গ্রিড লাইন থেকে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ না পাওয়াও বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অন্যতম কারণ।
উলে¬খ্য, জেলায় বিদ্যুতের চাহিদা ২২ থেকে ২৪ মেগাওয়াট। কিন্তু সেখানে পলাশবাড়ির গ্রিড লাইন থেকে দিনে ১৬ থেকে ১৭ মেগাওয়াট এবং রাতে বিশেষ করে পিক আওয়ারে ১২ থেকে ১৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। ফলে সংগত কারণেই গ্রামগুলোতে লোডশেডিং করে শহর এলাকায় লোডশেডিংয়ের মাধ্যমে ঘাটতির সময়গুলোতে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখা হচ্ছে। তবে গ্রামাঞ্চলের লোকজন জানিয়েছেন, শুধু পিকআওয়ারেই নয় দিনের বেলাতেও ৩ থেকে ৫ ঘন্টা লোডশেডিং করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গাইবান্ধা জেলা ছাত্রলীগের আলোচনা সভা

জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে গাইবান্ধা জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে বুধবার এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সংগঠনের জেলা কার্যালয়ে জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আব্দুল লতিফ আকন্দের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফারহাদ আব্দুল¬াহ হারুন বাবলু, মোজাম্মেল হক মন্ডল, শহিদুল ইসলাম আবু, সাইফুল আলম সাকা, গাইবান্ধা পৌর মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি রেজাউল করিম রেজা, সাধারণ সম্পাদক আমিনুর জামান রিংকু, ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাহাত মাহমুদ রনি, মোহাম্মদ আসিফ সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন মামুন প্রমুখ। ছবি সংযুক্ত

গাইবান্ধায় বাসদের বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ

ভারত কর্তৃক তিস্তা-ব্রহ্মপুত্রের পানি এক তরফা প্রত্যাহারের প্রতিবাদ এবং নদী ভাঙ্গন ও বন্যা সমস্যা স্থায়ী সমাধানের দাবিতে বুধবার জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। গাইবান্ধা বাসদ (মাকর্সবাদী) জেলা শাখা এই কর্মসূচীর আয়োজন করে।
স্থানীয় পৌর শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ জেলা আহবায়ক আহসানুল হাবীব সাঈদ, সদস্য সচিব মনজুর আলম মিঠু প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ভারতের পানি আগ্রাসন নীতির কবলে পড়ে নদীমাতৃক বাংলাদেশ আজ মরুভূমিতে পরিণত হতে চলেছে। ইতোমধ্যেই তিস্তা সেচ প্রকল্প অচল হয়ে পড়েছে। গত কয়েক বছর ধরে তিস্তা সেচ প্রকল্পের অধীন চাষিরা সেচ সুবিধা পাচ্ছে না। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে লক্ষ লক্ষ হেক্টর জমির ফসল। পদ্মার উজানে ফারাক্কা বাঁধ দেয়ায় মরুকরণের পথে উত্তরাঞ্চল। বক্তারা আরও বলেন দেশের মোট পানির ৬৫% আসে ব্রহ্মপুত্র দিয়ে। সেই ব্রহ্মপুত্রের উজানে আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্প করে ভারত এক তরফা পানি প্রত্যাহারের ষড়যন্ত্র করেছে। এই ষড়যন্ত্র সফল হলে দেশের গোটা উত্তরাঞ্চল মরুভূমিতে পরিণত হবে।

পলাশবাড়ীতে নিকাহ্ রেজিষ্টার বিরুদ্ধে রাস্ট্রদ্রোহী মামলা থাকায় বিবাহ নিবন্ধন বন্ধ ॥ জনগনের দুর্ভোগ

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নে নিকাহ্ রেজিষ্টার না থাকায় বিবাহ রেজিষ্ট্রীর ক্ষেত্রে জনগনকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ওই ইউনিয়নের নিকাহ্ ও রেজিষ্টার কাজী জাহাঙ্গীর আলম ২০১৪ সাল ও পরবর্তী সময়ে একাধিক মামলায় অভিযুক্ত আসামী হয়ে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক থাকায় সংশ্লিষ্ট এলাকার জনগন সমস্যার সম্মুখিন হয়েছে।
পলাশবাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মজিবুর রহমান জানান কাজী জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে নাশকতা , বিস্ফোরক দ্রব্য ও রাস্ট্রদ্রোহী মামলায় পলাশবাড়ি থানায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর ফলে তিনি ওই এলাকায় আর বসবাস করেন না। তাই এ ব্যাপারে আইন মন্ত্রনালয় সহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে ওই এলাকায় একজন কাজী নিয়োগ করে বিবাহ রেজিষ্ট্রারের ক্ষেত্রে জনগনের দুর্ভোগ কমাতে আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করতে এলাকাবাসীরা দাবি জানিয়েছেন।