ওয়ার্ন ও মুরালিধরনকে ছাড়িয়ে অনন্য রেকর্ড ‘বুড়ো’ হেরাথের!


❏ বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০১৬ খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ছুটে চলেছেন হেরাথ, বয়সের সঙ্গে বাড়ছে ধার, আরও বেশি ছড়াচ্ছেন ঔজ্জ্বল্য। হেরাথ তবু প্রতিদিন ছড়িয়ে যাচ্ছেন বিস্ময়, নিজেকে তুলে নিচ্ছেন নতুন উচ্চতায়।

বুধবার শেষ টেস্টের শেষ দিনে ৭ উইকেট নিয়ে টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দলকে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ। চতুর্থ ইনিংসে এই নিয়ে ৫ উইকেট পেলেন ৮ বার। তাই একটি জায়গায় কিংবদন্তি দুই স্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন ও শেন ওয়ার্নকে ছাড়িয়ে গেলেন রঙ্গনা হেরাথ। টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বার ৫ উইকেট তার!

শুধু তাই নয়, মুরালিধরনের পর সবচেয়ে বেশি দেশের বিপক্ষে ম্যাচে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তিও এখন এককভাবে চিরতরুণ হেরাথের। ক্যারিয়ারে এই নিয়ে ষষ্ঠবার ম্যাচে ১০ উইকেট পেলেন হেরাথ। ৬টিই ভিন্ন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে। হেরাথের চেয়ে বেশি দলের বিপক্ষে ১০ উইকেট নিতে পেরেছেন কেবল মুরালিধরন। ৯টি টেস্ট খেলুড়ে প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই ১০ উইকেট স্বাদ পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার স্পিন জাদুকর।

এদিকে চতুর্থ ইনিসে ৭ বার করে ৫ উইকেট নিয়েছেন মুরালিধরন ও ওয়ার্ন। ৫ বার করে নিয়েছেন বিষেণ সিং বেদি, ওয়াসিম আকরাম, অনিল কুম্বলে ও গ্লেন ম্যাকগ্রা।

herath

দ্বিতীয় ইনিংসে ৭ উইকেটের আগে এই টেস্টের প্রথম ইনিংসেও ৬ উইকেট নিয়েছিলেন হেরাথ। ১৪৫ রানে ১৩ উইকেট অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার কোনো বোলারের সেরা বোলিং। আগের সেরা ছিল ২০০৪ সালে মুরালিধরণের ২১২ রানে ১১ উইকেট।

৫টি ভিন্ন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ১০ উইকেট নিয়েছেন রিচার্ড হ্যাডলি, ইমরান খান ও অনিল কুম্বলে। এই তিনজনকে ছাড়িয়ে গেলেন এবার হেরাথ।

অথচ ২০১২ সালের আগে একবারও ম্যাচে ১০ উইকেট ছিল না হেরাথের। ওই বছরই মার্চে গলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিয়েছিলেন ১২ উইকেট। ২০১২ সালেই নভেম্বরে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে আবার গলেই ১২ উইকেট। পরের বছর মার্চে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রেমাদাসায় নিলেন ১২ উইকেট।

২০১৪ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে নিলেন ১৪ উইকেট। গত বছরের অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গলে ১০ উইকেট। এবার হেরাথের স্পিন জালে বাধা পড়ল শীর্ষ দেশ অস্ট্রেলিয়াও।

এই সিরিজে ৩ টেস্টে মোট ২৮ উইকেট নিয়েছেন হেরাথ। শ্রীলঙ্কার হয়ে এক সিরিজে এর চেয়ে বেশি সাফল্য আছে কেবলই মুরালিধরনের। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০০১-০২ সিরিজে ৩ টেস্টে ৩০ উইকেট নিয়েছিলেন মুরালিধরন।