• আজ সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ৬ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

ক্রিকেটারের পরিবর্তে সিনেমায় দুর্দান্ত খলনায়ক হয়ে ওঠার গল্প!


❏ বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৬ বিনোদন, স্পট লাইট

বিনোদন ডেস্ক – বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার হওয়ার সম্ভাবনা ছিল তার। এমন স্বপ্নই ছিল তার। কিন্তু সব স্বপ্ন তো আর পূরণ হয় না। শিমুল খানের ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্নও পূরণ হয়নি। কিন্তু স্বপ্নভঙ্গের যন্ত্রণায় তিনি মুষড়ে পড়েননি। তাই বাইশ গজে ব্যাটে ঝড় তোলার পরিবর্তে খলনায়কের দুর্দান্ত অভিনয় আর নায়কের হাতে মার খেয়েই তিনি দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। সিনেমার দর্শকদের ভালোবাসা পাওয়ার পর ক্রিকেটার না হওয়ার দুঃখ ঘুঁচে গেছে শিমুল খানের।

বর্তমানে চলচ্চিত্র অঙ্গনে শিমুল খান একজন প্রতিষ্ঠিত অভিনেতা। কিন্তু শুরুটা অন্যান্য অভিনেতাদের মতোই সংগ্রামী ছিল। ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ভেস্তে যাওয়ার পর ২০০৭ সালে র‌্যাম্প মডেল হিসেবে কাজ শুরু করেন। ২০১০ সালের দিকে নোমান রবিনের একটি নাটকের মাধ্যমে অভিনয়ে যাত্রা শুরু করেন ঢাকাই ছবির এ তরুণ ভিলেন। এরপর নাটকে নিয়মিত অভিনয় করতে থাকেন। তারই ধারাবাহিকতায় এ পর্যন্ত প্রায় ৩০-৩৫টি খণ্ড ও ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন শিমুল।

shimul-khan-vilen

ইফতেখার চৌধুরীর ‘মিস আন্ডার স্ট্যান্ডিং’ নামের একটি টেলিফিল্মে তার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে পরিচালক ইফতেখার চৌধুরী ‘দেহরক্ষী’ সিনেমায় খলচরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দেন। শুরু হয় তার খলনায়ক জীবনের যাত্রা। এরপর থেকেই কিছু আশা কিছু ভালোবাসা, ওয়ার্নিং, মুসাফির, সম্রাট, মোস্ট ওয়েলকাম-টু, দেশা দ্য লিডার, কার্তুজ, দ্য স্টোরি অব সামারা, চুপি চুপি প্রেম, ওয়ার্নিং, মেন্টালসহ ১৪টিরও বেশি সিমেনায় অভিনয় করে বেশ প্রশংসা কুড়ান।

শক্তিমান খলনায়ক হিসেবে আজকাল মিশা সওদাগরের পরে শিমুল খানকেই বিবেচনা করা হয়। শিমুল খান এখন নেতিবাচক চরিত্র অভিনয় করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। তার গেটআপ ও লুকের সঙ্গেও নাকি খলচরিত্র দারুণ মানিয়ে যায়। তাই তো দিনকে দিন বাড়ছে তার ব্যস্ততা। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে প্রায় এক ডজন ছবির কাজ।