🕓 সংবাদ শিরোনাম

দু’সপ্তাহের মধ্যেই শিশুদের কোভিড টিকাকরণ, সিদ্ধান্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নেবাড়িতে লুকিয়ে রাখা ৪৭ ভরি স্বর্ণসহ তিন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ আটকফিরে দেখা; ইতিহাসে আজকে এই দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা প্রবাহশীতে অপরূপ লাল শাপলার ডিবির হাওরময়মনসিংহ শহরের ভেতরেই রেলক্রসিং: প্রতিদিন ৮ ঘন্টা যানজটবিজয়ের ৫০ বছরে ওয়ালটন ল্যাপটপ ও এক্সেসরিজে ৫০% পর্যন্ত ছাড়মাইকিং করে ২গরু জবাই করল পরাজিত প্রার্থী, দাওয়াতে এলো না কেউ!সুনামগঞ্জে আফ্রিকা ফেরত প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকাতদন্ত কর্মকর্তাসহ ৬৫ জনের সাক্ষ্য-জেরায় সাক্ষ্যপর্ব সমাপ্তবিকৃতমনা মাদ্রাসা শিক্ষকের লালসার শিকার অসহায় এক কিশোরের জবানবন্দী!

  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

মহেশখালীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতন অতঃপর বিষ প্রয়োগে হত্যার অভিযোগ


❏ শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০১৬ চট্টগ্রাম

কক্সবাজার প্রতিনিধি :

মাতারবাড়িতে যৌতুকের দাবিতে স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে মানসিক,শ্বশুর, শাশুড়ি, দেবর কর্তৃক মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন, অতঃপর গৃহবধূ উম্মে হাবিবা(২০)কে বিষপান প্রয়োগে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া যায়। গত ১৫ আগস্ট সন্ধা ৭ টায় মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের মনহাজীর পাড়া শাহ আলমের পুত্রবধু তাহার ৪ র্থ ছেলে মোসতাক আহমদ এর স্ত্রী, উম্মে হাবিবা(২০) কে যৌতুকের জন্য বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়।

ঘটনার বিবরণ সুত্র জানা যায়, মহেশখালীর মাতারবাড়ী উত্তর রাজঘাট নিবাসী আলহাজ্ব জালাল আহমদের কন্যা উম্মে হাবিবার সঙ্গে ২০১৩ সালের ফ্রেবুয়ারি মাসে একই ইউনিয়নের মনহাজীর পাড়া নিবাসী আলহাজ্ব শাহ আলমের ছেলে মোসতাক আহমদ মুছার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় প্রায় ৩বছর পুর্বে।

বিবাহ পরবর্তী বর মুস্তাককে তার পিতার মাতারবাড়ীস্থ ব্যবসার মুলধনের জন্য শ্বশুর বাড়ী হইতে তার পিতার মাধ্যমে নগদ ১০ লক্ষ টাকা নিলেও পরবর্তী সময়ে তার পিতা আরো টাকা দাবি করে। বিয়ের পর থেকে স্বামী মোস্তাক, শ্বশুর শাহ আলম, শাশুড়ি মোহছেনা, ভাসুর ইছহাক,দেবর কুদ্দুসকুদ্দুস ও তাদের স্ত্রীরা বিভিন্ন সময় উম্মে হাবিবার ওপর অমানুষিক শারীরিক নির্যাতন করত। এসব নির্যাতনের ঘটনা মৃত উম্মে হাবিবার পরিবার জানলেও কন্যার ভবিষ্যত সুখের আশায় এবং ভবিষ্যত বিষয়টি সামাজিক বিচারের আওতায় আনলে নির্যাতনের মাত্রা বাড়তে পারে আশংকায় উম্মে হাবিবাকে ধৈয্য ধারণ করার পরামর্শ দেয়। সর্বশেষ গত ১৫ই আগষ্ট সন্ধ্যা ৭টায় যৌতুকের দাবিতে উম্মে হাবিবাকে শ্বশুর শ্বাশুড়ি চাপ দেয়,একই সময় স্বামী বিদেশ থেকে মোবাইল ফোনে স্ত্রী উম্মে হাবিবাকে গালিগালাজ করে টাকা আনতে বলে। সে তার বাবার অবস্থা খারাপ মর্মে বুঝিয়ে এসময় বাড়ি থেকে টাকা দিতে পারবেনা বলে অপরগতা প্রকাশ করলে, তার শ্বশুর তাকে গালিগালাজ করতে করতে আচমকা মাথায় সজোরে লাটি দিয়ে আঘাত করে মাটিতে ফেলে দেয়। পরে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সহায়তায় গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বলে অভিযোগে জানা যায়। পরে ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে পরিকল্পিত মৃত্যুকে অপমৃত্যু হিসেবে চালিয়ে দিতে জোর করে বিষ প্রয়োগের নাটক করতে মুখে বিষ ঢেলে দেয়।

murderঘটনার প্রায় ২/৩ ঘন্টা পর মৃত্যু নিশ্চিত জেনে মৃত উম্মে হাবিবার বড় ভাই ওসমান গনিকে তার বোন বিষ পান করেছে মর্মে ফোন করিলে মৃতের বড় ভাই তার বোনের শ্বশুরালয়ে গিয়ে বিষ পানের কারণ জিজ্ঞেস করলে কোন সদুত্তর না পেয়ে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সএ নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাঃ তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। অতঃপর মৃতের ভাই ওসমান ভিক্টিমকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করালে কর্তব্যরত ডাক্তার উম্মে হাবিবাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

হাবিবার পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, বিবাহের সময় বর পক্ষের দাবী মত পাত্রকে মোটর সাইকেল সহ ১০ ভরি স্বর্ণ, ১হাজার বরযাত্রী সহ ৫ লক্ষ টাকার আসবাবপত্র দেয়। তাতেও সন্তুষ্টি না হয়ে আরও যৌতুকের জন্য প্রতিনিয়ত নির্যাতন করত বলে জানা যায়।

মহেশখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বনিক চন্দ্র পাল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে ভিকটিমের পক্ষে তার পরিবার মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা যায় এমনকি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত উম্মে হাবিবার সুরত হাল প্রতিবেদনে মাথায় আঘাত, গলায় ফুলা জখম এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে আগাতের লালছে দাগ দেখা গেছে বলে উল্লেখ করেছে।

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে এবং এলাকাবাসী হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে জোর দাবী জানিয়েছে।