🕓 সংবাদ শিরোনাম

ফিরে দেখা, ১৯৭১- ‘মুক্তিযুদ্ধের এই দিনে’দু’সপ্তাহের মধ্যেই শিশুদের কোভিড টিকাকরণ, সিদ্ধান্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নেবাড়িতে লুকিয়ে রাখা ৪৭ ভরি স্বর্ণসহ তিন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ আটকফিরে দেখা; ইতিহাসে আজকে এই দিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা প্রবাহশীতে অপরূপ লাল শাপলার ডিবির হাওরময়মনসিংহ শহরের ভেতরেই রেলক্রসিং: প্রতিদিন ৮ ঘন্টা যানজটবিজয়ের ৫০ বছরে ওয়ালটন ল্যাপটপ ও এক্সেসরিজে ৫০% পর্যন্ত ছাড়মাইকিং করে ২গরু জবাই করল পরাজিত প্রার্থী, দাওয়াতে এলো না কেউ!সুনামগঞ্জে আফ্রিকা ফেরত প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকাতদন্ত কর্মকর্তাসহ ৬৫ জনের সাক্ষ্য-জেরায় সাক্ষ্যপর্ব সমাপ্ত

  • আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

বিলবোর্ড নিজে না সরালে ম্যাজিস্ট্রেট যাবে: আনিসুল হক


❏ শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – অবৈধ বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন, দেয়াল লিখন ও তোরণ সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান পুনর্ব‌্যক্ত করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক। তিনি বলেছেন, নইলে ‘ব‌্যাপক অভিযান’ চালিয়ে সেগুলো উচ্ছেদ করা হবে।

শুক্রবার গুলশানে সিটি করপোরেশনের নতুন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “আপনারা নিজে থেকে এসব সরিয়ে নিন। নইলে আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটরা এগুলো উচ্ছেদ করবে।”

সিটি করপোরেশন এলাকায় ব্যানার, বিলবোর্ড, ফেস্টুন টানাতে করপোরেশনের অনুমোদন প্রয়োজন হয়।

কিন্তু বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচি সামনে রেখে রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা বিলবোর্ড, ব্যানার ও ফেস্টুন টানানোর ক্ষেত্রে তা মানছে না অভিযোগ করে মেয়র আনিসুল বলেন, কর্মসূচি শেষ হলেও এসব ব্যানার না সরানোয় সিটি করপোরেশন ব্যবস্থা নিয়েছে। ইতোমধ্যে রাজনৈতিক দলের এরকম ২০০ বিলবোর্ড, ব্যানার ও ফেস্টুন অপসারণ করা হয়েছে।

anisul-haque

বাকিগুলো অপসারণে ‘ব্যাপক’ অভিযান চালানো হবে জানিয়ে তিনি বলেন, “যারা ব্যানার ফেস্টুন লাগিয়েছেন, তারা দয়া করে নিজ দায়িত্বে এসব সরিয়ে নিন।”

রাজধানীর বিভিন্ন দোকানপাট ও প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন হিসেবে লাগানো সাইনবোর্ডের কোনো অনুমোদন নেই জানিয়ে সে ব্যাপারেও ‘দ্রুত’ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান উত্তরের মেয়র।

“আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করব। এগুলো না সরালে জেল-জরিমানা করা হবে।”

গত ১৪ অগাস্ট সিটি করপোরেশন এলাকার অবৈধ বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টার, দেয়াল লিখন ও তোরণ অপসারণ করার নির্দেশ দেয় উচ্চ আদালত।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করে ২২ অগাস্ট এ বিষয়ে প্রতিবেদন দিতেও দুই সিটি করপোরেশনকে নির্দেশ দেয় হাই কোর্ট।

সংবাদ সম্মেলনে মেয়র আনিসুল বলেন, “দায়িত্ব নেওয়ার পরই অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণের কাজ শুরু করেছি। উচ্চ আদালতের নির্দেশের পর সিটি করপোরেশনের অবস্থান আরও কঠোর হয়েছে।”

আনিসুল হক এসময় তার গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প তুলে ধরে বলেন, ‘নগর অ্যাপের’ সাহায্যে সহজেই নাগরিক ভোগান্তি নিয়ে অভিযোগ করা যাচ্ছে। সেগুলোর সমাধানও দেওয়া হচ্ছে।