• আজ রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২১ ৷

অসত্য কথা বলে জনগণের কাছে ক্ষমা পাবেন না : নাসিম


❏ শনিবার, আগস্ট ২০, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের জন্য আওয়ামী লীগই দায়ী বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন দলটির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, এই ধরণের অসত্য কথা বলে মির্জা ফখরুলের দল বিএনপি আপনারা কিন্তু জনগণের কাছে ক্ষমা পাবেন না।

আজ শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডি রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, তার দল দীর্ঘ দিন ক্ষমতায় থাকাকালে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়। খুনি মোশতাকের ইনডেমিনিটি ধারণ করেছিলো জিয়া, এরশাদ ও বেগম খালেদা জিয়া। শেখ হাসিনার আমলে ৯৬ সালে বিচারের কাজ নিম্ন আদালতে কোর্টে শেষ হয়েছিলো। আপিল যখন উচ্চ আদালতে গেল তখন ক্ষমতায় ছিলো বিএনপি-জামায়াত।

তিনি বলেন, এই ধরণের অসত্য কথা বলে মির্জা ফখরুলের দল বিএনপি আপনারা কিন্তু জনগণের কাছে ক্ষমা পাবেন না। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের আপনারাই আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছেন, এখনও দিচ্ছেন। জামায়াতের সঙ্গে আপনারাই জোট করেছেন। এখনও জঙ্গিদের জন্য মায়াকান্না করছেন। সুতরাং এ কথা বলে কোন লাভ হবে না।

nasim-mp

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ১৪ দল মনে করে একুশে আগস্ট হত্যাকাণ্ডের বিচার হওয়া দরকার। দীর্ঘ দিন ধরে বিচার চলছে। আমরা আইনমন্ত্রী ও বিচারকার্যে সংশ্লিটদের আহ্বান জানাবো দ্রুত তম সময়ের মধ্যে বিচারের কাজ শেষ করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হোক।

তিনি বলেন, যার বিচার তো দূরের কথা তদন্ত পর্যন্ত হয়নি ঐ বিএনপি-জামায়াত সরকারের সময়। তখন ক্ষমতায় ছিলো খালেদা জিয়া হাওয়া ভবনের সে দু:শাসনের কথা মানুষ ভুলে যায়নি। তাদের সরাসরি নির্দেশে এই হত্যাকাণ্ড হয়েছিলো।

এ সময় একুশ আগস্ট হামলা নিহতদের প্রতি রোববার বিকেলে কেন্দ্রীয় ১৪ দল শ্রদ্ধা জানাবে বলেও জানান জোটের এই মুখপাত্র।

কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ বিরোধী ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে ১ সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জ, ২৩ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধা, ২৪ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাট ও ২৫ সেপ্টেম্বর নওগাঁ সমাবেশ করার ঘোষণা দেয় মোহাম্মদ নাসিম।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, উপ-দপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, কেন্দ্রীয় নেতা সুজিত রায় নন্দী, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, জাসদ (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহ্বায়ক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।