• আজ বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ১ ডিসেম্বর, ২০২১ ৷

ভৈরবে স্বামীর অত্যাচারে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ


❏ শনিবার, আগস্ট ২০, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

রাজীবুল হাসান, ভৈরব, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: ভৈরবে স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রী হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত ঐ গৃহবধূর নাম রিমা বেগম। তার মা বাবার অভিযোগ তাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। আজ শনিবার রাত ৭ টায় কালীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

রিমা বেগমের স্বামীর নাম শামীম মিয়া। সকালে গৃহবধূর অসুস্থার খবর পেয়ে তার মা তারাবানু মেয়ের শুশুর বাড়ী এসে মেয়েকে মূমুর্ষ অবস্থায় দেখে দ্রুত তাকে একটি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। ওই ক্লিনিকে তাকে ভর্তি না করায় স্থানীয় উপজেলা কমপ্লেক্স হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাতে মৃত ঘোষনা করেন।

জানা যায়, ভৈরবের লুন্দিয়া গ্রামের মোঃ কুদ্দুছ মিয়ার মেয়ে রিমা বেগমকে ১০ বছর আগে শহরের কালিপুর গ্রামের আতর মিয়ার ছেলে শামীমের কাছে বিয়ে দেন। তার একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী তাকে টাকার জন্য প্রায়ই নির্যাতন করত বলে মা তারাবানু অভিযোগ করেন। শনিবারও তাকে স্বামী, শ্বাশুড়ী, ননদ মিলে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে বলে তার ছোট বোন মিষ্টি বেগম অভিযোগ করেন। নিহত গৃহবধূর মা ও বোনের অভিযোগ নির্যাতনের কারনেই তার মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সের ডাঃ মেজবাহ উদ্দিন বলেন, রিমা বেগমের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। পুলিশের সুরুতহাল রিপোর্টে যৌনাংগে রক্তক্ষন পেয়েছে। ডাক্তার বলছে, পেটে আঘাত হলে এধরনের রক্তক্ষরন হতে পারে।

voirob-death

রিমা বেগমের খালু অভিযোগে বলেন, স্বামী শামীম টাকার লোভী। প্রায় সময়ই সে টাকার জন্য তাকে মারধোর করত। তিনি বলেন, স্বামীর নির্যাতনেই তার মৃত্যু হয়েছে।

স্বামী শামীম পলাতক রয়েছে বলে সূত্রে জানা যায়।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বদরুল আলম তালুকদার জানান, নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তবে ময়না তদন্তের পর বলা যাবে মৃত্যুর কারন। নির্যাতনে তাকে হত্যা করার প্রমান পাওয়া গেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।