🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

পাবনায় বাবার উপর অভিমানে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা


❏ সোমবার, আগস্ট ২২, ২০১৬ অকালমৃত্যু প্রতিদিন

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার ঈশ্বরদীতে পরীক্ষায় ফেল করায় বাবার বকুনি খেয়ে অভিমানে কান্তা খাতুন (১২) নামের এক স্কুল ছাত্রী গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। আজ সোমবার উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের পতিরাজপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত কান্তা পতিরাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী এবং ওই গ্রামের কৃষক শফি মালিথার একমাত্র সন্তান।

atohotta

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফরোজা বিনতে আনছারী জানান, কান্তা প্রায়ই স্কুলে অনুপস্থিত থাকতো, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় সে ফেলও করেছে। কান্তার বাবা শফি মালিথা জানান, তার মেয়েটি ঠিকমত পড়াশোনা করতে চাইত না, স্কুলেও নিয়মিত যেত না। সম্প্রতি পরীক্ষায় ফেল করার পর তাকে তিনি বকা দিয়েছিলেন। আজ সোমবার সকালে কান্তাকে স্কুলে যাওয়ার জন্য বলে তিনি মাঠে চলে যান। পরে অভিযানে মেয়েটি গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই তালুকদার সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, মেয়েটি দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগে ভূগছিল বলে স্থানীয়দের কাছ থেকে জেনেছেন। এ ঘটনায় একটি থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।