🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

‘শিগগিরই গ্যাস নিঃসরণ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে’


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ২৩, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের (চট্টগ্রাম) ডেপুটি অ্যাসিটেন্ট ডিরেক্টর মো. জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, গ্যাস নিয়ন্ত্রণের অংশ হিসেবে তারা ওয়াটার স্প্রে দিয়ে যাচ্ছেন। তারা আশা করছেন দ্রুত সম্পূর্ণ গ্যাস নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। এখন ১০-১৫ পিপিএম (পার্ট পার মিলিয়ন) পরিমাণে গ্যাস বের হচ্ছে। তিনি বলেন, যখন দুর্ঘটনা ঘটে তখন বাতাসে অ্যামোনিয়ার পরিমাণ ছিল ৬০০ পিপিএম।gasএখন ১০ থেকে ১৫ পিপিএম। সকালে ছিল ১০০ পিপিএম। তিনি জানান, ড্যাপে যারা কাজ করেন তাদের সহনীয় ক্ষমতা ২৫ পিপিএম পর্যন্ত। আর সাধারণ মানুষের ক্ষমতা ৫ পিপিএম। তিনি আরও জানান, বিস্ফোরণের সময় প্রচণ্ড বেগের কারণে রিজার্ভ ট্যাংক ৩০ ফিটের মতো ছিটকে পড়ে।

উল্লেখ্য, রবিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে, ড্যাপ (ডাই অ্যামোনিয়াম ফসফেট) ফার্টিলাইজার কম্পানি লিমিটেডের একটি সার কারখানার অ্যামোনিয়া গ্যাস ট্যাংক লিকেজ হয়ে আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে অসুস্থ হয়ে ৫২ জন হাসপাতালে ভর্তি হন।

কারাখানাটি বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) অধীনস্থ একটি প্রতিষ্ঠান। এটি কর্ণফুলী নদীর দক্ষিণ তীরবর্তী আনোয়ারা উপজেলার রাঙাদিয়ায় অবস্থিত। ২০০৬ সালের ১২ সেপ্টেম্বর কারখানাটি উৎপাদনে আসে।