নরসিংদীতে ধর্ষণ মামলায় ৬ জনের ফাঁসির আদেশ


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ২৩, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী- নরসিংদীর পলাশে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের ফ্যাক্টরির এক নারী শ্রমিককে (৩০) পালাক্রমে ধর্ষণের মামলায় ৬ জনের ফাঁসি ও দণ্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ১ লক্ষ টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদলত। একইসঙ্গে মোবাইলে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণের অপরাধে পর্নগ্রাফী আইনে ৬ আসামিকে ৭ বছরের সশ্রম কারদণ্ড ও ২ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।140327121237_noose_640x360_bbc_nocreditমঙ্গলবার বিকেলে নরসিংদীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শামীম আহাম্মেদ এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- কুদ্দুছ আলী ছেলে আশিকুর রহমান (২২), তাজুল ইসলামের ছেলে ইলিয়াছ ওরফে সফিকুল (২৩), সিরাজ শেখের ছেলে রুমিন মিয়া (২০), মন্টু মিয়ার ছেলে ইব্রাহিম (২২), হানিফা মিয়ার ছেলে রবিন আহম্মেদ (২০) ও সাদ্দাম মিয়ার ছেলে আ. রহমান (২৪)। তাদের সবার বাড়ি পলাশ উপজেলার বাগপাড়া গ্রামে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১৩ সনের ২৩ মে পলাশ থানার বাগপাড়া গ্রামে অবস্থিত প্রাণ আরএফএল কোম্পানীর ফার্নিচার-২’র এক মহিলা কর্মচারী তার অফিসের প্রাত্যহিক কাজ শেষ করে একই গ্রামের মুক্তা ভিলায় তাদের নিজস্ব মেসের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। মহিলা কর্মচারীটি বেলা আড়াইটায় জনতা মিল গেইটের সামনে পৌঁছুলে ধর্ষক আশিকুর, ইলিয়াছ ওরফে শফিকুল, রুমিন, রবিন, ইব্রাহিম ও আব্দুর রহমান তাকে ধরে জোরপূর্বক পার্শবর্তী একটি নির্জন স্থানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ সময় রুমিন তার মোবাইলে ধর্ষণক্রিয়ার ছবি ধারণ করে। এ সময় তাকে সহযোগিতা করে ধর্ষক ইব্রাহিম ও আব্দুর রহমান।

মহিলা কর্মচারীটি এই ঘটনা প্রাণ আরএফএল কোম্পানীর সহকারী ব্যবস্থাপক ডিপিএল (এ্যাডমিন) এএসএম সাদেকুল ইসলামকে জানালে তিনি ঘটনাটি কোম্পানীর উর্ধতন কর্মকর্তাদেরকে অবহিত করেন। উর্ধতন কর্মকর্তাগণ এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের নির্দেশ দিলে সহকারী ব্যবস্থাপক এএসএম সাদেকুল ইসলাম কোম্পানীর ডেপুটি ম্যানেজার মোঃ কামাল হোসেন, এজিএম মোঃ ফজলে রাব্বী এবং নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে নিয়ে পলাশ থানায় গিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে।

দায়েরকৃত মামলার প্রেক্ষিতে পলাশ থানা পুলিশ দীর্ঘ তদন্ত শেষে ৬ ধর্ষকের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। দাখিলকৃত চার্জশীট অনুযায়ী ১২ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষগ্রহণ ও পর্যালোচনা শেষে বিজ্ঞ বিচারক শামীম আহম্মদ মঙ্গলবার এক জনাকীর্ণ আদালতে ৬ ধর্ষকের ফাঁসি ও অর্থদণ্ডাদেশ ঘোষণা করেন। বিজ্ঞ বিচারক তার রায়পত্রে ধর্ষকদের মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছেন।