• আজ মঙ্গলবার, ৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

রাজ্যবাসীর হাতে বেশি করে মদ তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত মমতার


❏ বুধবার, আগস্ট ২৪, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

মআন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-নীতিশ কুমারের সরকার ভারতের বিহার রাজ্যে যেখানে মদ্যপানের ওপর পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে , ঠিক সেখানেই প্রতিবেশি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের প্রশাসনিক প্রধান হিসাবে মমতা বন্দোপাধ্যায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যবাসীর হাতে আরও বেশি করে মদ তুলে দেওয়ার।

ক্ষমতায় এসেই নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি মতো মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার গত এপ্রিল থেকে বিহারে মদককে সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পরই রাজ্য ‘শুখা দিন’ (নো অ্যালকোহল বা ড্রাই ডেজ) হয়ে দাঁড়িয়েছে। উল্টোদিকে গত মে মাসে সরকারের আসার পর পশ্চিমবঙ্গে ‘ড্রাই ডেজ’এর সংখ্যা কমিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী আগে যেখানে রাজ্যটিতে বছরের ৩৬৫ দিনের মধ্যে ১২ দিন মদের দোকানগুলো বন্ধ থাকতো। নতুন নির্দেশিকায় তা কমিয়ে সাড়ে ৪ দিন করা হয়েছে। অর্থাৎ এই সাড়ে ৪ দিনই লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকানগুলো বন্ধ থাকবে। ঘুরিয়ে বলা যেতে পারে, এই নির্দেশিকায় রাজ্যবাসীর হাতে আরও বেশি করে মদ তুলে দেওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হল। যদিও রাজ্যটির অর্থমন্ত্রণালয় বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে।

রাজ্য আবগারি দফতরের নতুন নির্দেশিকায় রাজ্যে লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকানগুলো চারদিন সারাবেলা বন্ধ থাকবে, এগুলো হল ২৬ জানুয়ারী রিপাবলিক ডে, ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস, ২ অক্টোবর মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন এবং মহরমের দিন। দোল যাত্রার দিন আধা বেলা মদের দোকানগুলো বন্ধ থাকবে।

তবে এই নির্দেশিকার আওতায় পড়ছে না থ্রি-স্টার ও তার ঊর্ধ্ব স্টার হোটেলগুলোর বার কিংবা রাজ্যের অভিজাত ক্লাবগুলো। সেখানে বছরের ৩৬৫ দিনই মদ পাওয়া যাবে। সামনেই হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব দূর্গাপূজা। তার আগে আবগারি দফতরের নতুন এই নির্দেশিকায় রাজ্যের একাংশ যে খুশিই হবেন সে কথা হলফ করে বলা যায়। তবে অ্যালকোহল থেকে আরও বেশি রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যেই রাজ্য সরকারের নতুন এই নির্দেশিকা বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।