দৃশ্যটি মাত্র ৩০ সেকেন্ডের অথচ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পরী’র করতে সময় লেগেছে ১ দিন!


❏ বুধবার, আগস্ট ২৪, ২০১৬ বিনোদন, স্পট লাইট

বিনোদন ডেস্ক – বাংলা সিনেমার মধ্যে ব্যয় বহুল ও যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘রক্ত’। এটি একটি লেডি একশন সিনেমা। এ ছবিতে মূলত দেখানো হয়েছে মানুষ নিজের রক্তের জন্য যেকোন ঝুঁকি নিতে পারে, নিজের রক্তের জন্য অতি সাধারণ শান্তশিষ্ট মেয়েটিও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে।

বরাবরই নতুন কিছু করার চেষ্টা করে বাংলাদেশে সাড়া জাগানো নির্মাতা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়া। যদিও বাংলাদেশের বেশিরভাগ সিনেমা নকলের দোষে দুষ্ট। কিন্তু ‘রক্ত’ সম্পর্কে জাজ দাবি করেছে এটি এমন একটি সিনেমা যা দুই বাংলায় কখনো হয় নাই। এছাড়া এখানে অভিনেতা-অভিনেত্রী অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ স্টান্ট নিয়েছেন শুধুমাত্র ছবির চরিত্রগুলোকে বাস্তব করে তুলতে।

এছাড়া আছে নায়িকার পানির নিচে একশন দৃশ্য। যা ছিলো অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এবং বিপদজনক। দৃশ্যটি ছিলো এরকম- ২০ ফুট উঁচু, ৪ ফুট চওড়া একটি মোটা কাঠের হুইলে পরী কে বেধে পানিতে চুবানো হবে। পরী পানির ভিতর থেকে বাঁধা হাত খুলে, মারামারি করে নিজেকে উদ্ধার করবে।

pori-risk-shootকিন্তু হুইলটি এতো ভারি যে এটা মটর ছাড়া ঘুরানো যায় না। আর একবারে পরী পানির নিচে ৪০ সেকেন্ড থাকতে পারে সুস্থ স্বাভাবিক ভাবে। কথা হল, মটর দিয়ে হুইল ঘুরিয়ে পরীকে যখন পানিতে ডুবানো হবে, তখন যদি বিদ্যুৎ চলে যায়, ওকে উঠাবো কি করে? তাই stand by জেনেরেটর রাখা হল।

তারপর ও যদি কোন কারণে মেশিন এ গোলযোগ দেখা দেয়, তার ছিড়ে যায় বা হুইল ফেঁসে যায়, তাহলে জীবনের ঝুঁকি থেকে যাবে।

আর শটটি যে একবারে হবে, তা না !!! কারণ একবারে পানির নিছে ৪০ সেকেন্ড এর উপর থাকতে পারে না। এই ৪০ সেকেন্ড ৪০ সেকেন্ড করে কম বেশী ১০০ বার পানির নিচে ডুবানো হবে।

চেন্নাই এর ফাইট মাস্টার রাজেস (শাহরুখ খানের ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ সিনেমার এর ফাইট মাস্টার), পরীকে অনেক বুঝিয়ে রাজি করালো।

এরপর চেন্নাই এর ফাইট মাস্টার রাজেস পরীকে ১০৭ বার পানির নিচে নিয়ে দৃশ্য ধারণ করেছে। আর এটা করতে সারা দিন লেগেছে। সিনেমাতে দৃশ্যটি ৩০ সেকেন্ড এর কিন্তু শুটিং করতে সময় লেগেছে ১ দিন।

এই রকম অনেক দৃশ্য আছে ২০ সেকেন্ড বা ১০ সেকেন্ড এর দৃশ্য, কিন্তু শুটিং টাইম ১ দিন, ২ দিন। এছাড়া আছে নায়িকার খামখেয়ালিপনা। যে শুটিং জুলাই এর ১২ তারিখে শেষ হওয়ার কথা, সেই শুটিং শেষ হল কিছু দিন আগে, শুধু নায়িকার কারণে ১ মাস শুটিং টাইম বেশী লেগেছে। এর ফলে ১ কোটি টাকা প্রোডাকশন খরচ বেড়ে গিয়েছে।

ছবিটি আসছে ঈদে মুক্তি পাবে বলে জানিয়েছে জাজ।