সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-টাঙ্গাইল ৬০ কিমি মহাসড়কে থাকবে ৭০০ পুলিশ

❏ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

অন্তু দাস হৃদয়, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: আসন্ন ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নিরাপদ ও হয়রানিমুক্ত রাখতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে টাঙ্গাইলের প্রায় ৬০ কিলোমিটার (কিমি) অংশে টাঙ্গাইল জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের প্রায় ৭০০ সদস্য মোতায়েন করা হচ্ছে।

tangail_somoyer-konthosorএ ছাড়া মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ক্যাডেট কলেজ এলাকায় ও জামুর্কী ইউনিয়নের পাকুল্যা এলাকায় ২টি ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে। এ ছাড়া মহাসড়কের রাবনা ও এলেঙ্গায় আরও ২টি ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করা হবে বলে টাঙ্গাইলের ডিআইও ওয়ান হারেজ আলী জানিয়েছেন।

এ দিকে, যানজট নিরসন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণসহ যাত্রী হয়রানি রোধে মির্জাপুরের গোড়াই এলাকা থেকে বঙ্গবন্ধু যমুনা সেতু পূর্ব পাড় পর্যন্ত র‌্যাব-১২ ও পুলিশের কয়েকটি বিশেষ টিম কাজ করবে। তাদের পর্যবেক্ষণের জন্য মহাসড়কের পাশে প্রায় ২৫টি স্থানে তাবু স্থাপন করা হচ্ছে।

একই সঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত মহাসড়কের মির্জাপুর, টাঙ্গাইল সদর ও এলেঙ্গা বাইপাস এলাকায় দায়িত্ব পালন করবে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব হোসেন।

টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন, র‌্যাব ও পুলিশের এসব টিম গত ৫ সেপ্টেম্বর থেকে কাজ শুরু করেছে। আগামী ২/৩ দিনের মধ্যে ৭০০ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হবে। তারা ঈদের পরেও সপ্তাহখানেক দায়িত্ব পালন করবেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, ওই ৬০ কিমি অংশে প্রতি ৫ কিমি ভাগ করে দিনে-রাতে বিশেষ টিম কাজ করবে। এসব টিমে জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তারা থাকবেন। এ ছাড়া যে কোনো সমস্যা সমাধানে মোটরসাইকেল যোগে পুলিশের প্রায় ৪০টি ভ্রাম্যমাণ টিম কাজ করবে। সড়ক দুর্ঘটনায় তাৎক্ষণিক উদ্ধারকাজের জন্য মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে কয়েকটি রেকার মজুদ থাকবে বলেও সূত্র জানায়।

টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২, সিপিসি-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার মো. মহিউদ্দিন ফারুকী সময়ের কন্ঠস্বর’কে জানান, যাত্রীদের নিরাপত্তায় তারা ৬০ কিমি সড়কে টহলে থাকবেন।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব হোসেন সময়ের কন্ঠস্বরকে জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনারদের (ভূমি) নিজ উপজেলা এলাকায় যানজট নিরসনে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের সঙ্গে সমন্বয় করে যানজট নিরসনসহ অপরাধ নিয়ন্ত্রণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার জন্য কয়েকজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাখা হয়েছে।

টাঙ্গাইল জেলা বাস-কোচ-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান লালজু সময়ের কন্ঠস্বর’কে জানান, এ মহাসড়ক দিয়ে উত্তরবঙ্গের ২০টি জেলার প্রতিদিন গড়ে বিভিন্ন ধরনের কমপক্ষে ১৮ থেকে ২০ হাজার যানবাহন চলাচল করে থাকে। তবে ঈদ উপলক্ষে প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ থেকে ৩৫ হাজার বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করছে।