আরও ১৬ বীরাঙ্গনা পেলেন মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি

৮:৫২ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসরদের হাতে নির্যাতিত আরো ১৬ বীরাঙ্গনা। তাদের মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দিয়ে গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার।

181832fighter_ko_picএ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পাওয়া বীরাঙ্গনার সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪৬ জনে। এ বীরাঙ্গনারা প্রতি মাসে ভাতাসহ মুক্তিযোদ্ধাদের মতোই অন্যান্য সব সরকারি বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন।
মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সচিব এম এ হান্নান বৃহস্পতিবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বীরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়টি একটা চলমান প্রক্রিয়া। এটি হতে থাকবে। তারা মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আবেদন করেন, জামুকা (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) আবেদন যাচাই-বাছাই ও এ বিষয়ে তদন্ত করে আমাদের কাছে সুপারিশ করে। আমরা গেজেট জারি করি।

মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পাওয়া ১৬ বীরাঙ্গনাদের মধ্যে রয়েছেন-ঠাকুরগাঁওয়ের রাণী শংকৈলের মৃত শ্রীমতি তিত্ত বালা, সাতক্ষীরার দেবহাটার মৃত সতী সাবিত্রী চক্রবর্তী ও নিছতারা বিবি, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার মোছা. শুকুরন নেছা, শেরপুরের নালিতাবাড়ীর মোছা. হাফিজা বেওয়া ও সমলা বেওয়া।

এ ছাড়া গাইবান্ধার সাদুল্লাহপুরের মোছা. ছাপাতন বেওয়া, গোপালগঞ্জ সদরের রাশিদা বেগম, সিলেটের শিবগঞ্জের রোকেয়া বেগম, বরিশালের আগৈলঝাড়ার কানন গোমেজ, মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার মিনারা বেগম, হবিগঞ্জের মাধবপুরের সন্ধ্যা ঘোষ, কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের মোসা. আফিয়া বেগম, নাটোর সদরের মোছা. শেফালী বেগম ও শ্রীমতি বিমলা রাণী সরকার, লালমনিরহাটের হাতিবান্ধার আমিচা বেগমকে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।