বাংলাদেশে অবাধে ঢুকছে ভারতীয় রোগাক্রান্ত গরু ও মহিষ

❏ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬ Breaking News, দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –   কোনো ডাক্তারি পরীক্ষা ছাড়াই এবারের ঈদে বাংলাদেশের  কয়েকটি সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিনই প্রবেশ করছে শত শত  ভারতীয় রোগাক্রান্ত গরু ও মহিষ । যথাযথ নজরদারি না থাকায় কুড়িগ্রাম সীমান্ত দিয়ে যাত্রাপুর ও ভুরুঙ্গামারী করিডর হাটে প্রবেশ করছে  এই গরু ও মহিষ । সুস্থ গবাদি পশুর সাথে মিশে তা চলে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন কোরবানির হাটে।

roga

এসব গবাদি পশুকে সরকারি রাজস্বের আওতায় আনা হলেও শনাক্ত করা হচ্ছে না তাদের শরীরে থাকা বিভিন্ন রোগ। ফুট অ্যান্ড মাউথ ও খুড়া রোগসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ভারতীয় এসব পশুর চিকিৎসা করানো হচ্ছে করিডর হাটেই।

সদর উপজেলার যাত্রাপুর হাট ঘুরে দেখা গেছে, রোগাক্রান্ত গরু-মহিষকে গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়ে কোনো রকমে সুস্থ করে তোলা হচ্ছে। এরপর সেগুলোকে অন্য পশুর সাথে ট্রাক বোঝাই করে নিয়ে যাচ্ছে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে।

যাত্রাপুর হাটের গরু ব্যবসায়ী আমিনুল ইসলাম জানান, বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ও নদীপথে ভারতীয় গরু যাত্রাপুর হাটে আসে। কিন্তু এর মধ্যে কিছু গরু অসুস্থ থাকে। এসব অসুস্থ গরুকে গ্রাম্য পশু চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করিয়ে ঢাকা ও চট্টগ্রামে পাঠানো হয়।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা দীপক রঞ্জন জানান, সীমান্তের প্রবেশ দ্বারগুলোতে ভারতীয় গবাদি পশুর রোগ শনাক্তের ব্যবস্থা না থাকালেও করিডর হাটগুলোতে নিয়মিত মনিটরিংয়ের মাধ্যমে চিকিৎসা করানো হচ্ছে। তবে একবার হাটে রোগাক্রান্ত গরু ঢুকে যাওয়ার পর চিকিৎসা করালে তা কতটুকু কার্যকর হবে সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।