• আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

লন্ডনের শীর্ষ প্রভাবশালীর তালিকায় টিউলিপ

❏ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- লন্ডনের শীর্ষ এক হাজার প্রভাবশালীর তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিকসহ চার বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক। দৈনিক ইভনিং স্টান্ডার্ড পত্রিকা এ তালিকা প্রকাশ করেছে। নিজের ভেরিফাইড অ্যাকাউন্ট থেকে এক টুইটে লেবার দলের ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক এ তথ্য জানিয়েছেন।

tulip_siddiq_640x360_bbc_nocreditফেসবুকে অন্য একটি পোস্টে তিনি বলেছেন, ‘শীর্ষ প্রভাবশালীর তালিকায় স্থান দেয়ায় নিজেকে আমি সম্মানিত মনে করছি।’

তালিকায় স্থান পাওয়া অন্য বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতরা হলেন- বেথনালগ্রিন ও বো আসনের এমপি রুশনারা আলী, প্রখ্যাত বাংলাদেশী-ব্রিটিশ নৃত্যশিল্পী আকরাম খান ও মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেনের সেক্রেটারি জেনারেল হারুন খান।

শহরের সায়েন্স মিউজিয়ামে অনুষ্ঠিত জমকালো ওই অনুষ্ঠানে ‘দ্য প্রোগ্রেস ওয়ান থাইজেন্ড’ শিরোনামে দশমবারের মতো লন্ডনের হাজার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের তালিকা প্রকাশ করে পত্রিকাটি। এ বছর তালিকার শীর্ষে ছিলেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান, তাকে লন্ডনার অব দ্য ইয়ার হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। এছাড়াও তালিকাটিতে ওই তালিকায় রয়েছেন যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের মতো ব্যক্তিত্ব।

এ তালিকার ওয়েস্টমিনিস্টার ক্যাটাগরিতে শেখ রেহানার কন্যা টিউলিপ সিদ্দীককে রাখার ব্যাপারে বলা হয়েছে,টিউলিপকে আত্মপ্রচারবিমুখ উল্লেখ করে ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড জানিয়েছে, ‘টিউলিপ যখন বিরোধে জড়িয়ে পড়েন তখনই তার সেরাটা চেনা যায়।’

সিরীয় উদ্বাস্তুদের ব্রিটিশ সরকারের সহায়তা দেওয়ার ব্যপারে টিউলিপের সরব উপস্থিতিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করেছে পত্রিকাটি। এছাড়াও গর্ভবতী থাকা অবস্থায় হাউজ অব কমন্সের বিতর্ক চলাকালে টিউলিপ খাবার গ্রহণ করতে গিয়ে হাউজ অব কমন্সের নিয়ম ভাঙ্গলে ডেপুটি স্পিকার টিউলিপকে বলেছিলেন, ‘টিউলিপ প্রেগন্যান্সি কার্ড ব্যবহার করে হাউজ অব কমন্সের নিয়ম ভেঙ্গেছেন।’

টিউলিপ সিদ্দীকের ফেসবুক স্ট্যাটাসপরে টিউলিপ সিদ্দীক পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেছিলেন, ‘একজন নারী হিসেবে ডেপুটি স্পিকারের জানা উচিত ছিল কখন একজন গর্ভবতী মায়ের খাবার গ্রহণের প্রয়োজন হয়।’ ওই সময় তিনি প্রয়োজনে গর্ভবতীদের জন্য হাউজ অব কমন্সের নিয়ম শিথিল করারও প্রস্তাব দেন।

প্রতি বছর মোট ৩২টি ক্যাটাগরিতে পত্রিকাটি এ প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বকে নির্বাচিত করে। প্রিন্স চার্লসের উপস্থিতিতে লন্ডনের স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যায় তালিকাটি প্রকাশিত হয়।