🕓 সংবাদ শিরোনাম

বাংলাদেশিদের ভালোবাসা দেখে বিস্মিত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূতঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যাত্রী পরিবহনের প্রতিযোগিতায় ট্রাক ও পিকআপখেলার আগে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন কুড়িগ্রামের ক্রিকেটারেরাপাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে থানায় নেওয়া হলো প্রথম আলোর রোজিনা ইসলামকেকর্মস্থলে ফিরতে গাদাগাদি করে রাজধানীমুখী লাখো মানুষশেরপুরে পৃথক ঘটনায় একদিনে ৭ জনের মৃত্যুএক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরবত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুতে নিহতের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতম

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

জেসন স্টাথাম ও ড্রাগনের সঙ্গে মানুষের বন্ধুত্ব !


❏ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক-

হলিউডের নতুন দুটি ছবি মুক্তি পেলো ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সের পর্দায়। শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) থেকে এখানে চলছে অ্যাকশন থ্রিলার ‘মেকানিক: রিসারেকশান’ ও অ্যাডভেঞ্চার চলচ্চিত্র ‘পেটস ড্রাগন’।

546-jpg566ডেনিস গ্যানসেল পরিচালিত অ্যাকশন থ্রিলারধর্মী ছবি ‘মেকানিক: রিসারেকশান’ হলো ‘মেকানিক’ সিরিজের তৃতীয় ছবি। পেশাদার কিংবা ভাড়াটে খুনিদেরকে অবজ্ঞা করে বলা হয় মেকানিক। পেশাদার কিংবা ভাড়াটে খুনিদেরকে অবজ্ঞা করে বলা হয় মেকানিক। তেমন খুনিদের গল্প নিয়ে ১৯৭২ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য মেকানিক’ রিমেক হয় ২০১১ সালে। পাঁচ বছর পর এলো এর দ্বিতীয় কিস্তি। এবারের গল্পে দেখা যায়, অংশীদার থেকে শত্রুতে পরিণত হওয়া স্টিভ ম্যাককেনার মৃত্যুর দায় থেকে কৌশলে বেঁচে যাওয়ার পর আর্থার বিশপ ভাড়াটে খুনির পেশা ছেড়ে দেয়। কিন্তু বিশপের প্রেয়সীকে ভয়ঙ্কর এক শত্রু অপহরণ করে। এ কারণে তিনটি অসম্ভব গুপ্তহত্যা করতে বিভিন্ন দেশে যেতে বাধ্য হয় সে। হত্যাগুলোকে দুর্ঘটনা মনে করানোই তার মূল চেষ্টা।

এ ছবিতেও আর্থার বিশপ চরিত্রে অভিনয় করেছেন হলিউডের অ্যাকশন তারকা জেসন স্টেটহ্যাম। এ ছাড়া আছেন জেসিকা অ্যালবা, টমি লি জোন্স ও মিশেল ইও। সামিট প্রিমিয়ারের পরিবেশনায় ‘মেকানিক: রিসারেকশন’ মুক্তি পায় গত ২৬ আগস্ট।

এদিকে, ‘পেটস ড্রাগন’ হলো মানুষ ও ড্রাগনের বন্ধুত্ব আর রোমাঞ্চকর অভিযান। এক দুর্ঘটনায় মা-বাবার তাৎক্ষণিক মৃত্যু হলেও বেঁচে যায় পাঁচ বছর বয়সী পেট। বনের ভেতর এক ড্রাগনের মুখোমুখি হয় সে, যার চোখ হলুদ আর অনেক পাখা। ড্রাগনটিকে এলিয়ট বলে ডাকে পেট। কারণ তার বইয়ে এমন একটি চরিত্র সম্পর্কে সে পড়েছে। এক পর্যায়ে তাদের দু’জনের খুব ভালো বন্ধুত্ব হয়ে যায়। ফলে টানা ছয় বছর একসঙ্গে বনে বসবাস করে তারা।

একদিন করাতিদের একটা দল আসে বনে। নাটালি নামের একটি মেয়ে পেটকে অনুসরণ করে। গাছে উঠে তাকে অনুসরণ করতে গিয়ে আহত হয় মেয়েটি। তার বাবা, মা এবং পার্ক রেঞ্জার তাকে দেখতে আসে। যখন তারা পেটকে খুঁজে পায় সে তখন দৌড়ে পালাতে চায়। কিন্তু জ্যাকের ভাই গেভিনের হাতে ধরা পড়ে। পেটকে শহরে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে গ্রেইস, জ্যাক ও নাটালি। এলিয়ট যখন বুঝতে পারে পেট নেই তখন উতলা হয়ে খুঁজতে থাকে কিন্তু গেভিনের নজরে পড়ে যায় সে। করাতি দল নিয়ে বনের ভেতর তাড়া করে তাকে।

এর মধ্যে পেটকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে বনে ফিরে যাওয়ার উদ্দেশ্যে পালায় সে। পুলিশ এবং গ্রেইস তাকে পাকড়াও করে এবং ধরে ফেলে। পরদিন বনে নিয়ে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করে পেটকে তাদের সঙ্গে থাকার আমন্ত্রণ জানায় গ্রেইস, নাটালি ও জ্যাক। পেট যখন তার বন্ধু এলিয়ট সম্পর্কে বলে তখন গ্রেইস বুঝতে পারে তার বাবা তাকে এমন এক ড্রাগনের গল্প বলেছিলো। গেভিন এবং তার অনুসারীরা যখন এলিয়টকে খুঁজতে যায় সে তাদেরকে প্রতিহত করে এবং তাদের অনুসরণ করে পেটের সন্ধানে শহরে যায়। সেখানে গিয়ে যখন দেখে পেট খুব সুখেই আছে তখন দুঃখ ভারাক্রান্ত হয়ে নিজের ঘরে ফিরে যায় সে।

ওয়াল্ট ডিজনি পিকচার্সের এ ছবির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন ডেভিড লোয়েরি। এতে অভিনয় করেছেন ব্রাইস ডালাস হাওয়ার্ড, রবার্ট রেডফোর্ড, ওয়েস বেন্টলি, কার্ল আরবান, ওনা লরেন্স, ওকস ফেগলি প্রমুখ।

এই বিভাগ থেকে আরও পড়ুন :