টঙ্গীতে বয়লার বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩ : তদন্ত কমিটি গঠন ৫ সদস্য বিশিষ্ট


❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

রেজাউল সরকার(আঁধার), গাজীপুর প্রতিনিধি : মহানগরের টঙ্গীতে বিসিক শিল্প নগরীতে ট্যাম্পাকো কারখানার বয়লার বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩ তে পৌঁছেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত আরো শতাধিক মানুষ।

তবে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা আশংকা করছেন।

নিহতদের মধ্যে আটজনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- কারখানার শিফট ইনচার্জ সুভাস (৪০), প্রিন্টিং হেলপার রফিকুল ইসলাম (২৮), সিকিউরিটি গার্ড আবদুল হান্নান (৪৫), অপরাটের মামুন (৪০), আনোয়ার (৪০), জয়নুল (৩৪), রেদোয়ান (৩৫) ও ক্লিনার শংকর (৪০)।

কারখানার ভেতরে আটকা পড়েছেন শতাধিক শ্রমিক। কেউ বলছে, আটকা পড়েছেন ৩শ শ্রমিক, আবার কেউ বলছে ৫শ। সঠিক সংখ্যাটা জানা নেই কারও। কিন্তু ভেতরে যারা আটকা পড়েছেন তাদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কম বলেই মনে করছে এলাকাবাসী।

কারণ, আগুন জ্বলছে প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা ধরে। কালো ধোঁয়ায় যেনো ভাসছে মৃত্যুর অশনি সংকেত। শনিবার সকাল পৌনে ১১টা পর্যন্ত টঙ্গী বিসিক শিল্পনগরীতে টাম্পাকো ফয়েলস লিমিটেডের কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় এলাকার বাতাস কালো ধোঁয়ায় ভরে উঠেছে। ধসে পড়েছে পাচ‍ঁতলা ভবনের একাংশ।

এলাকাবাসী জানায়, কারখানাটিতে তিন শিফটে ২১০০ লোক কাজ করেন। প্রতি শিফটে ৭০০ জন। ভোর সোয়া ছয়টায় যখন আগুন লেগেছে তখন নাইট শিফট মাত্র শেষ হয়ে সকালের শিফট শুরু হয়েছে। আগুন লাগার পর অধিকাংশ শ্রমিক বের হতে পারেননি। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জন। এই সংখ্যাটি শেষ পর্যন্ত কতো হবে তাই নিয়ে আতঙ্কিত স্থানীয়রা।

tongi-agun

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ ঘটনা স্থলে থেকে সার্বক্ষনিক নিয়ন্ত্রন কাজের অগ্রগতি পর্যবেক্ষন করছেন ।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আখতারুজ্জামান জানান, অগ্নিকাণ্ডে পাঁচতলা ভবন পুরোটা ধসে গেছে। এখন পর্যন্ত ২৩ জন নিহত হয়েছে বলে বিভিন্ন গনমাধ্যমের খবরে জানা গেছে।

এদের মধ্যে ভবন থেকে ১৫ টি লাশ উদ্ধার করে টঙ্গি ৫০ শয্যার হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আহত ৩৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) নেয়া হলে সেখানে আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়। আরো বিভিন্ন হাসপাতালে রয়েছে ৪ জনের মরদেহ। বাকিরা ঢামেকে চিকিৎসাধীন।

আখতারুজ্জামান আরও জানান, ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। সকাল সোয়া ১১ টা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

এরআগে জয়দেবপুর ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা মো. রফিকুজ্জামান জানান, বিসিক নগরীর ট্যাম্পাকো পুটিং লিমিটেড কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণ থেকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়।

এদিকে , গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাহেনুল ইসলামকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট এ তদন্ত কমিটি গঠন করেছে গাজীপুর জেলা প্রশাসন।

আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে গাজীপুর জেলা পরিষদে এ তদন্তের প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম আলম তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।