🕓 সংবাদ শিরোনাম

রোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফআর এমন ভুল হবে না: নোবেলস্বেচ্ছায় কারাবরণের আবেদন নিয়ে থানায় অনুসন্ধানী সাংবাদিকেরাইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতিযমুনা নদীতে ডুবে তিন কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতাকে তথ্য চুরি বলা হচ্ছে, এর চেয়ে দুঃখ আর নেই’

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

ভারতীয় গরু-মহিষে সয়লাব রাজশাহীর অধিকাংশ পশুহাট


❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর: হঠাৎ ভারতীয় গরু-মহিষে সয়লাব হয়েছে মহানগরীসহ জেলার অধিকাংশ পশুরহাট। রাজশাহী অঞ্চলের সবচেয়ে বড় পশুরহাট সিটিবাইপাস হাটে ভারতীয় গরু আমদানির দৃশ্য ছিল চোখে পড়ার মত। অথচ কয়েকদিন আগেও সিটিহাটসহ জেলার অন্যান্য গরুরহাটগুলোতে দেশীয় খামারে পালিত গরুর আধিক্য ছিল বেশি।news-pic-kurbani-gpru

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার হঠাৎ মহানগরীর সিটিহাটসহ বিভিন্ন গরুরহাটে ভারতীয় গরুর উপস্থিতি বেড়েছে। তবে হাটগুলোতে ব্যাপক মাত্রায় ভারতীয় গরুর আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় গরুর দাম কমতির দিকে। শুক্রবার সিটিহাটে কথা হয় ঢাকার জুরাইনের গরু ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেনের সাথে।

তিনি বলেন, বরাবরের মতো এবারো রাজশাহী থেকে গরু কেনার জন্য এসেছি। দুই একদিনের মধ্যেই গরুর দাম সীমার মধ্যে আসবে বলে তিনি আশা করছেন। শুধু আমজাদ হোসেন নয়, এমন কথা বলেছেন আরো অনেকে।

সিলেটের গরু ব্যবসায়ী লোকমান আলী বলেন, আজ অথবা কালকের মধ্যেই গরু কিনে সিলেটের হাটে বিক্রি করবো ইনশাল্লাহ।

রাজশাহী সিটি হাটের ইজারাদার আতিকুর রহমান কালু বলেন, আমাদের হাটে প্রথম থেকেই দেশি গরু-ছাগলের উপস্থিতি ভালোই ছিল। কিন্তু ভারতীয় গরু হাটে না আসলে হাট জমবে না। তাই হাটে ভারতীয় গরুর আমদানি শুরু হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আগের চেয়ে হাট জমে উঠেছে। ক্রেতা বিক্রেতাদের দর কষাকষির মধ্যে দিয়েই গরুর দাম নির্ধারণ করা হচ্ছে। হাটের নিরাপত্তায় আমরা সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

রাজশাহী মেট্টোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) ব্যবস্থাপনায় ইতোমধ্যে সিটিহাটে জাল টাকা শনাক্তকারী মেশিন স্থাপন করা হয়েছে।

নগরীতে বসবাসরত পুঠিয়া ইসলামিয়া কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আব্বাস আলী পিন্টু বলেন, গত বৃহস্পতিবার কোরবানির জন্য ৬৪ হাজার টাকায় একটি গরু কিনেছি। কিন্তু আমি কেনার পর হাটে ভারতীয় গরুর ব্যাপক উপস্থিতি দেখছি। ভারতীয় গরুর ব্যাপক আমদানিতে অচিরেই গরুর দাম কমে যাবে বলে মনে করছেন তিনি।