• আজ শনিবার, ১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৫ মে, ২০২১ ৷

জমে উঠেছে কোরবানির পশুর হাট “পঞ্চাশ হাজারের নিচে কোন গরুই বেচাকেনা হয়নি”


❏ রবিবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর- প্রতিনিথি (নারায়ণগঞ্জ):ঈদের বাকি আর মাত্র দুইদিন। এরই মধ্যে জমতে শুরু করেছে আড়াইহাজার উপজেলার অস্থায়ী কোরবানির পশু’র হাট। এবার ঈদে ভারতের গরু না আসায় স্থানীয় পর্যায়ে খামারীদের উৎপাদিত গবাদি পশু দিয়েই কোরবানির ঈদ সম্পন্ন করা হবে। গরুর খামারীদের চোখে মুখে আনন্দের ঝলকানি থাকলেও হতাশ হচ্ছেন ক্রেতারা। স্বাদ ও স্বাদের মধ্যে পশু কেনার জন্য একহাট থেকে আরেক ছুটে বেড়াচ্ছেন। অনেকেই বেকায়দায় রয়েছেন। অনেকেই বলতে শুনা গেছে শেষ পর্যন্ত কোরবানি দেয়া যাবে কিনা।

আড়াইহাজারে বিভিন্ন পশুরহাট ঘুরে দেখা গেছে, পঞ্চাশ হাজারের নিচে কোন গরুই বেচাকেনা হয়নি। ভাল মানের মোটা তাজা গরু কিনতে গেলে দাম হাঁকাছেন তিন-চার লাখ টাকা।
কালাপাহাড়িয়া এলাকা থেকে বাছেদ নামের একজন গরু ব্যবসায়ী দু’ট্রাক গরু এনেছেন বিক্রির জন্য। তিনি প্রতিটি গরুর দাম হাঁকিয়েছেন এক লাখ পঞ্চাত্তুর হাজার থেকে তিন লাখ আশি হাজার টাকা করে। গরু গুলো মোটা তাজা হওয়ায় দেখতে বাজারে ভিড় জমিয়েছে উৎসুক ক্রেতা সাধারণ। এছাড়াও বাজারে দেখা গেছে লাখ টাকা দামের আরো অনেক গরু।

araihazar-poro-1
শিবপুর এলাকার নাছির নামের এক ক্রেতা বলেন, লাখ টাকার গরুগুলো আমাদের ক্রয়সীমানা মধ্যে নেই। দু’ভাগের একটি গরু মিলানোর চেষ্টা করছি। গত বছর নিজে একা গরু কিনে কোরবানি দিয়েছি। আর এবার ভাগাভাগি করে কোরবানি দিতে হচ্ছে। এ দিকে কোরবানির মসলা বাজারেও দাম বেঁড়েছে। তাই এবার একার দ্বারা কোরবানি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

এবার কোরবানি গরুর দাম ক্রেতাদের ক্রয় সীমানার বাইরে। বিদেশী গরু না থাকায় দেশী গরু ব্যবসায়ীরা ইচ্ছে মতো গরুর দাম হাঁকিয়েছেন।
কাঠালিয়া এলাকা থেকে আসা গরু ব্যবসায়ী আমির আলী বলেন, আমরা কি করবো। যে হারে গরুর ভূসি, খইরের দাম বেড়েছে তাতে করে গরুর দাম না বাড়িয়ে আমাদের উপায় আছে। গরু বাজারে আনতে আমাদেরকে ট্রাক ভাড়া দিতে হচ্ছে গতবারের চাইতে দ্বীগুন।এ বছর আড়াইহাজারে সরকারিভাবে ৮টি গরুর হাট বসেছে। কিন্তু এর বাইরে অসংখ্য গরুর বসেছে।