🕓 সংবাদ শিরোনাম

রোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফআর এমন ভুল হবে না: নোবেলস্বেচ্ছায় কারাবরণের আবেদন নিয়ে থানায় অনুসন্ধানী সাংবাদিকেরাইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতিযমুনা নদীতে ডুবে তিন কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতাকে তথ্য চুরি বলা হচ্ছে, এর চেয়ে দুঃখ আর নেই’

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

যে কারনে অলিম্পিকের মত পদকে কামড় না দিয়ে পদকে কান পাতছেন প্যারিলিম্পিয়ানরা


❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৬ খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস ডেস্ক-

24646উসাইন বোল্ট থেকে মাইকেল ফেলেপস্। সিমোনা বাইলোস থেকে সাক্ষী মালিক। রিও অলিম্পিকের পোডিয়ামে দাঁড়িয়ে পদকে কামড় দিতে দেখা গিয়েছে অনেক অ্যাথলেটকেই। আসলে অলিম্পিকে এমনই রেওয়াজ। পদকে কামড় দিয়ে সেলিব্রেট করা। প্যারালিম্পিকের ব্যাপারটা কিন্তু একটু আলাদা। প্যারা অ্যাথলেটদের এই অলিম্পিকে পদকজয়ীরা তাদের জেতা পদক কানে দিয়ে শোনেন। এর পিছনে একটা কারণ আছে। আসলে এই প্রথমবার প্যারালিম্পিকে পদকজয়ীদের জন্য করা হয়েছে এক বিশেষ ব্যবস্থা।

দৃষ্টিহীন অলিম্পিয়ানরা যাতে পদকটা সোনা, রূপা না ব্রোঞ্জ সেটা বুঝতে পারেন তার জন্য পদকের মধ্যে করা রয়েছে এক বিশেষ ব্যবস্থা। যাতে পদকটা নাড়ালেই শোনা যাবে বিশেষ আওয়াজ। যেমন ব্রোঞ্জ পদকে দেওয়া আছে ১৬টা স্টিলের বল। রূপার পদকে দেওয়া আছে ২০টা, আর সোনার পদকে ২৮টা। ফলে পদক নাড়ালেই বোঝা যাবে সেটা সোনা,রূপা নাকি ব্রোঞ্জ। তাই দৃষ্টিহীন অ্যাথলেটরা পদক বাজিয়ে বুঝতে পারছেন। দৃষ্টিহীন অ্যাথলেটদের মত রিও প্যারালিম্পিকে পদক বাজিয়ে  দেখছেন অন্য অ্যাথলেটরাও। এটাই রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে এবারের প্যারালিম্পিকে।