আড়াইহাজারে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে শত শত যানবাহন

⏱ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৬ 📁 ঢাকা, দেশের খবর

এম এ হাকিম ভূঁইয়া, আড়াইহাজার প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার রামচন্দ্রী এলাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের অধিনে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে বছরের পর বছর চলছে শত শত যানবাহন। যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

এই সেতু দিয়ে প্রতিদিন উপজেলার পূর্বাঞ্চল কুমিল্লা, ব্রাঞ্ছারামপুর থেকে শত শত যাত্রীবাহি গাড়ী আড়াইহাজার হয়ে ঢাকা যাচ্ছে। ব্রাঞ্জারামপুর থেকে মেঘনা সেতু দিয়ে যাতায়তে কয়েক ঘন্টা সময় বেশী লাগায় ওই এলাকার যাত্রীরা আড়াইহাজার হয়ে চলাচল করছেন। ঈদুল আযাহাকে ঘিরে অতিরিক্ত গাড়ী চলাচলের ফলে সেতুটির অবকাঠামো ক্রমসই দুর্বল হয়ে পড়ছে। এতে সেতুটি আরও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। গাড়ী সেতুতে উঠতেই থড় থড় করে কাঁপতে শুরু করে। এতে যাত্রীদের মধ্যে আতংক দেখা দিচ্ছে।

জানা গেছে, ১৯৯৫ সালে ব্রহ্মপুত্র নদীর ওপর বেইলী ব্রিজটি আড়াই কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। ব্রিজের পার্শে রয়েছে “ঝুঁকিপূর্ণ বেইলী ব্রিজ, ৫ টনের অধিক মাল পরিবহণ নিষেধ।” সেতুটি দীর্ঘদিন ধরে দুর্বল হয়ে পড়লেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ধরনের ব্যবস্থাই গ্রহণ করছে না।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, গাড়ী উঠতেই ব্রিজটি বিকট শব্দ হচ্ছে। পুরো ব্রিজের বিভিন্ন অংশের পাটাতন নড়বড়ে হয়ে গেছে। এটি সরু থাকায় একসাথে দুইটি গাড়ী পারপার হতে পারে না। ভারি যানবাহন চলাচলের সময় ব্রিজটি কাপতে থাকে। প্রায়ই ব্রিজের ওপর যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করছে। ফলে যে কোনো সময় দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ব্রিজের বেশ কয়েকটি পাটাতন দেবে গেছে। ব্রিজটি স্থায়ীভাবে মেরামত করা না হলে যে কোনো সময় যাতায়াত বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

beili-setu

এই সড়কে চলাচলরত অভিলাস পরিবহনের চালক মোঃ বিল্লাল হোসেন জানান, সেতুটি দীর্ঘদিন ধরেই নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছে। গাড়ী উঠতেই কাপতে থাকে। এতে যাত্রীরা ভয়ে থাকেন। তিনি আরও বলেন ‘সেতু পারাপারের সময় মনে এই বুঝি ভেঙে পড়লাম। দীর্ঘদিন ধরে ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ার পরও মেরামত করার জন্য কেউ আসেনি।’

সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) এর চিটাগাং রুট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী একেএম সামছুউদ্দিন আহম্মেদ বলেন, প্রকল্পের জন্য এরই মধ্যে সয়েল স্টেট করা হয়েছে। ক্রেডিবিলিটি পরীক্ষা করা হয়েছে। আরও বলেন, ‘সারা বাংলাদেশে থেকে বেইলী ব্রিজের একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। এটি বাস্তবায়ন হলেই ব্রিজটির কাজ ধরা হবে।’