🕓 সংবাদ শিরোনাম

খেলার আগে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন কুড়িগ্রামের ক্রিকেটারেরাপাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে থানায় নেওয়া হলো প্রথম আলোর রোজিনা ইসলামকেকর্মস্থলে ফিরতে গাদাগাদি করে রাজধানীমুখী লাখো মানুষশেরপুরে পৃথক ঘটনায় একদিনে ৭ জনের মৃত্যুএক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরবত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুতে নিহতের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতমকলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীর মরদেহ উদ্ধারটাঙ্গাইলে কৃষক শুকুর মাহমুদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার-১

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

বেড়েই চলছে কাঁচা মরিচের দাম , ঝালে নাজেহাল ক্রেতা


❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক -  প্রতিদিন দফায় দফায় বেড়েই চলছে কাঁচা মরিচের দাম ,বিক্রেতারা ইচ্ছেমতো ক্রেতাদের কাছ থেকে দাম নিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কারওয়ান বাজারে কাঁচা মরিচের দাম নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডাও দেখা গেছে।

kacha

ঢাকার বিভিন্ন স্থানে প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ আড়াই শ টাকা থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। সঞ্জীব নামের এক ব্যক্তি জানান, সকালে তিনি ১৬০ টাকায় কাঁচা মরিচ কিনেছেন। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে এখন কেজিতে দাম বেড়েছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকা। জুরাইনের এক বাজার থেকে বিপ্লব রহমান ১০০ গ্রাম কাঁচা মরিচ কিনেছেন ৪০ টাকায়। রাজধানীর রামপুরা মহানগর প্রজেক্টে ভ্যানে করে সবজি বিক্রেতারা প্রতি কেজি মরিচের দাম রাখছেন ৩০০ টাকা থেকে ৩৪০ টাকা। কয়েকজন বিক্রেতার সঙ্গে আলাপকালে তাঁরা বলেন, আড়ত থেকে বেশি টাকায় তাঁরা মরিচ কিনেছেন। তাই খুচরা বিক্রিও বেশি দামে করছেন।

সন্ধ্যায় সানোয়ারা বেগম নামের এক নারী কাঁচা মরিচের দাম শুনে বিক্রেতার সঙ্গে হইচই শুরু করেন।

কারওয়ান বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী মল্লিক নুরুল আমিন বললেন, ঈদের আগে থেকেই কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে। ঈদের আগে মরিচের কেজি ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। কিন্তু আজ থেকে দামটা বেশি বেড়েছে। কারওয়ান বাজারের পাইকারি বাজারে প্রতি পাল্লা (৫ কেজি) কাঁচা মরিচ ৮০০ থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। অর্থাৎ মান ভেদে প্রতি কেজির দাম পড়েছে ১৬০ থেকে ২৪০ টাকা। স্বপন কুমার নামে আড়তের একজন কর্মচারী বললেন, গত দুই দিনে দাম ওঠানামা করছে। অল্প সময়ের ব্যবধানে দামও বেড়েছে। একজন ব্যবসায়ী বলেন, ঈদের কারণে ট্রাক আসছে না। আড়তে খুব বেশি কাঁচা মরিচও নেই। এ কারণে দাম বেড়েছে। তাঁর মতে দুই দিনের মধ্যে দাম কমে আসবে।