• আজ রবিবার,২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ৯ মে, ২০২১, রাত ১০:২২

বুকে কফ জমে গেছে? তাহলে এই ৭ ঘরোয়া টোটকা আপনার জন্য

❏ রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৬ আপনার স্বাস্থ্য

আপনার স্বাস্থ্য ফিচারটি লিখেছেন নিশীতা মিতু-
বুকের মধ্যে সর্দি জমে গেলে কাশি, শ্বাস কষ্ট, বুকে ব্যথা সহ নানা অসুবিধা দেখা যায়। ঠান্ডা লাগার কারণে যেমন বুকে সর্দি বসে যায় তেমনি জ্বর, ব্রঙ্কাইটিশ, যক্ষা প্রভৃতি রাগ হলেও বুকের মধ্য সর্দি জমে যায়। যার ফলে বুকে ব্যাথা সহ বিভিন্ন সমস্যা বাড়তে থাকে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে বেশ কিছু ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার করা যেতেই পারে। কিন্তু তার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে রাখা ভাল। পাশাপাশি এই সমস্যায় পড়লে ঘুম এবং শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা যাতে বৃদ্ধি পায় সে দিকে খেয়াল রাখা জরুরী। পরিমান মত খাবার খাওয়া এবং ধুলো, ধোঁয়া থেকে দূরে থাকা উচিৎ এই সময়ে। একনজরে এবার দেখে নেওয়া যাক কোন কোন ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
cough-problemপ্রথম পদ্ধতি
বুকে জমা কফ গলিয়ে ফেলতে গারগল করাটা খুব জরুরী। এক গ্লাস হাল্কা গরম পানির মধ্য অল্প লবন মিশিয়ে প্রতিদিন কমপক্ষে তিনবার গারগল করতে হবে। দিনে তিনবার বা তার অধিক সময়ে যদি গারগল করা যায় তাহলে গলার রুক্ষতা এবং জমে থাকা সর্দি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
দ্বিতীয় পদ্ধতি
রান্নার কাজে ব্যবহৃত হলুদের মধ্যে বিভিন্ন গুণ রয়েছে। সর্দির উপশমেও এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। এর মধ্যে অন্যতম হল হাল্কা গরম পানির মধ্যে গুঁড়ো হলুদ মিশিয়ে গারগল করলে তা অত্যন্ত উপকারি। তবে যাদের অ্যাসিডিটির সমস্যা আছে তাদের এই পদ্ধতি ব্যবহার না করাই ভাল।
তৃতীয় পদ্ধতি
পেঁয়াজের মধ্যে এমন কিছু উপাদান আছে যা বুকের মধ্যে জমে থাকা সর্দিকে গলিয়ে দিতে পারে। এর জন্য প্রতিদিন তিন চামচ করে পেঁয়াজের রস খেতে হবে। সর্দি জমে থাকলে এই উপকরনটি ব্যবহারে উপকার পেতে পারেন।
চতুর্থ পদ্ধতি
বুকে জমে থাকা সর্দির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে এই পদ্ধতিটি খুব কম প্রচলিত। যদিও এতে বেশি কিচ্ছু করতে হয় না। শুধুমাত্র ফুটন্ত গরম পানির মধ্যে কয়েক ফোঁটা ইউকালিপটাস তেল মিশিয়ে নিতে হয়। এর পর মিশ্রণ থেকে থেকে যে বাষ্প বের হয় তা নাক এবং মুখ দিয়ে টানতে হয়। তবে বিশেষভাবে মনে রাখা প্রয়োজন যারা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভোগেন তাদের এই পদ্ধতি ব্যবহার করা উচিৎ নয়।
পঞ্চম পদ্ধতি
পানির মধ্যে লেবু এবং মধু মিশিয়ে খেলে সর্দির থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। লেবু মধ্যে থাকা ভিটানিম ডি জমা সর্দি কে গলিয়ে দিতে পারে। এর সঙ্গে মধু খেলে কাশির উপশম হয়। তাই বুকের মধ্যে সর্দি জমে গেল লেবু এবং মধু-পানির মধ্যে মিশয়ে খাওয়া যেতে পারে।
ষষ্ঠ পদ্ধতি
বুকে সর্দি জমে থাকলে অনেক সময় বুকে ব্যথার সৃষ্টি হয়। এর থেকে মুক্তি পেতে একটি সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করা যেতে পারে। ছোট কাপড়ের টুকরো গরম পানির মধ্যে ডুবিয়ে বুকের মধ্যে তা মালিশ করলে অনেক আরাম পাওয়া যায়।
সপ্তম পদ্ধতি
আদার মধ্যে যে সব উপাদান রয়েছে তা সর্দির উপশমের জন্য বেশ উপকারি। বুকে মধ্যে সর্দি জমে থাকার ফলে বুকে ব্যাথা এবং ঘন ঘন কাশির সমস্যা দেখা যায়। এর থেকে মুক্তি পেতে আদা চা খাওয়া যেতে পারে যা কাশির জন্য অব্যর্থ।