• আজ শনিবার, ১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৫ মে, ২০২১ ৷

হত্যা মামলার আসামি সংসদ সদস্য রানার আত্মসমর্পণ


❏ রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৬ জাতীয়

%e0%a6%aa%e0%a6%9f%e0%a6%beসময়ের কন্ঠস্বর ডেস্কঃ- দীর্ঘ ছয় মাস পলাতক থাকার পর আজ রবিবার অাদালতে আত্মসমর্পণ করেন   টাঙ্গাইলে মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার আসামি সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা। রবিবার সকাল পোনে নয়টার দিকে তিনি টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। ছয় মাস পালিয়ে থাকার পর তিনি আজ  রবিবার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।

এর আগে গত ৬ এপ্রিল টাঙ্গাইলে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলায় টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের এমপি আমানুর রহমান খান রানা ও তাঁর তিন ভাইসহ পলাতক ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

২০১৩ সালের ১৮ই জানুয়ারি রাত ১১টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদকে তাঁর কলেজপাড়ার বাসার কাছে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে এলাকার লোকজন। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার পর ফারুক আহমেদের স্ত্রী নাহার আহমেদ বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানায় মামলা করেন।

গত ৩রা ফেব্রুয়ারি হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা টাঙ্গাইল গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর গোলাম মাহফিজুর রহমান মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এমপি রানা ছাড়া হত্যা মামলার বাকি আসামিরা হলেন- তাঁর তিনভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার সাবেক মেয়র সহিদুর রহমান খান মুক্তি, ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান খান কাকন ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সানিয়াত খান বাপ্পা,এমপি রানার ঘনিষ্ঠ সহযোগী কবির হোসেন, দারোয়ান বাবু ওরফে দাঁতভাঙা বাবু, তৎকালীন যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেন চান, নাসির উদ্দিন নূরু, ছানোয়ার হোসেন ও সাবেক পৌর কমিশনার মাছুদুর রহমান।