🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

নীলফামারীতে গাজাঁ বিক্রেতার বাড়ীতে কতিপয় যুবকের হামলা


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর

মোঃ মহিবুল্লাহ্ আকাশ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট-

নীলফামারী জেলার ডোমারে গাজাঁ বিক্রয়ের অভিযোগ এনে জগদ্বিশ চন্দ্র রায় নামক এক ব্যক্তির বাড়ীতে  হামলা ও মারধর করেছে কয়েক যুবক। এ ঘটনায় ডোমার থানায় ৮ যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

জানা যায়, ডোমার উপজেলার হরিনচড়া ইউনিয়নের পশ্চিম হরিণচড়া গ্রামের মৃত কানু রাম রায়ের ছেলে জগদ্বিশ চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে গাঁজা বিক্রির অভিযোগ এনে  গত শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে এলাকার কয়েক যুবক তার বাড়ীতে  হামলা চালিয়ে জগদ্বিশ চন্দ্র ও তার স্ত্রী শান্তি রানীকে বেদম প্রহার করে ঘড়বাড়ী ভাংচুর করে। এ ঘটনায় জগদ্বিসের ছেলে মনোরঞ্জন রায় বাদী হয়ে ওই এলাকার ৮ যুবকের নামে ডোমার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযুক্তরা হলেন, ওই গ্রামের মৃত খোকার ছেলে ইউসুফ আলী, জহদ্দি মামুদের ছেলে শিমু, নুরল ইসলামের ছেলে আশিকুল, সাহেব আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম, কুলসুম বেগমের ছেলে সোনা মিয়া, জেয়ারুল হকের ছেলে জাহিনুর, মনছুর আলীর ছেলে ইউসুফ ও আব্দৃল মজিদের ছেলে রশিদুল ইসলাম।

sontrasi-hamla-kotiyadiআজ সোমবার সরেজমিনে গেলে জগদ্বিস চন্দ্রের স্ত্রী শান্তি রানী জানায়, গত শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে ২০/২৫জন যুবক আমাদের বাড়ীতে হামলা করে আমাকে এবং আমার স্বামীকে বেধরক মারধর করে। আমাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসিলে তারা চলে যায়। তিনি সাংবাদিকদের আরো জানান, আমার স্বামী আগে গাঁজা বিক্রি করতো। এ জন্য সে জেল খেটেছে। জেল থেকে ছাড়ার পর গত ৫/৬মাস যাবত সে আর গাঁজা বিক্রি করে না। তবে সে নিজেই গাঁজা সেবন করে।

জগদ্বিসের ভাই হরিশ চন্দ্র জানায়, আমার ভাই জেল খাটার পর থেকে গাঁজা বিক্রি করে না। তবে নিজেই খাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন গাঁজা না খেলে সে থাকতে পারে না। গাঁজা বিক্রির মিথ্যা অভিযোগ এনে বাড়ীতে হামলা করে দাদা-বউদিকে মারধর  করা ঠিক হয়নী।

এ ব্যাপারে হরিনচড়া ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম জানান, জগদ্বিসের বাড়ীতে হামলার ঘটনা জেনেছি। তবে তার বাড়ীতে হামলা করে মারধর করা ঠিক হয়নি। এ ব্যাপারে জগদ্বিসের ছেলে মনোরঞ্জন রায়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার ডোমার থানার এস আই শাহিন ঘটনা তদন্ত করেছে বলে জানা গেছে।