• আজ ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অবশেষে প্রেমিক যুগলের দায়ের মামলায় গ্রেফতার হলেন আলোচিত সেই চেয়ারম্যান


(সোনাগাজী প্রতিনিধি)সময়ের কণ্ঠস্বর ফেনী ঃ সোনাগাজীতে পরকীয়া প্রেমিক যুগলের দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন এবং চাঁদাবাজী মামলায় গ্রেফতার হলেন উপজেলার চর দরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু। মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.হুমায়ুন কবির জানায়, শনিবার দিবাগত রাত ২ টায় ফেনীর ডাক্তার পাড়ার একটি ভাড়া বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রবিবার বিকাল তিনটায় ফেনী বিজ্ঞ অাদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরন করা হয়।

প্রসঙ্গত, পরকিয়া প্রেমের কথিত অভিযোগ এনে এক চা দোকানীকে মাথা ন্যাড়া ও জুতার মালা পরিয়ে শাস্তি দিলেন চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভুট্টু। ঘটনাটি শুক্রবার বিকালে উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের চরশাহাভিকারী গ্রামের কারামতিয়া বাজার সংলগ্ন স্থানে ঘটে। ইউপি চেয়ারম্যানের এখতিয়ার বহির্ভুত শাস্তি প্রদানে পুরো উপজেলায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান

  ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু।

সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, চরশাহাভিকারী গ্রামের সামচুল হক সর্দার বাড়ীর আবুধাবী প্রবাসী ইসমাইলের স্ত্রী গৃহবধু ছকিনা আক্তার লাভলির সাথে একই গ্রামের বলি বাড়ীর শাহাব উদ্দিনের ছেলে আমিনের সাথে গত কয়েক মাস আগে পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্পর্কের কারনে হতদরিদ্র আমিন তার পরকিয়া প্রেমিকার কাছ থেকে দোকানে পুঁজি খাটানোর জন্য কিছু টাকা ধার নেয়।বিষয়টি গ্রামের কিছু বখাটে জানতে পেরে আমিনের কাছে চাঁদা দাবী করে।

নাম প্রকাশে কয়েকজন গ্রামবাসী জানান আমিন তাদের চাহিদামত চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে বখাটেরা তাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।একপর্যায়ে তারা লাভলিকে প্রলোভন ও ভয় দেখিয়ে ভাগে আনে।বখাটেদের ভয়ে লাভলি তার পরকিয়া প্রেমিক আমিনের কাছে ধার দেওয়া টাকা ফেরত চাইলে তাদের সম্পর্কের অবনতি ঘটে।ঘটনার দিন লাভলি আমিনের বাড়ীতে গেলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বখাটেরা তাদের দুজন কে আটক করে মারধর করে।

বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ভুট্টুকে জানালে সে ঘটনাস্থলে এসে বিচারের নামে আমিনের মাথা ন্যাড়া ও জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম ঘুরানোর আদেশ দেয়। আদেশ পেয়ে গ্রামবাসী আমিনের মাথা ন্যাড়া ও জুতার মালা পরিয়ে কানধরে উঠবস করিয়ে গ্রামের রাস্তা প্রদক্ষিন করায়।তবে লাভলি আক্তারের পাওনা টাকা ও তার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহন করেনি চেয়ারম্যান। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম সহ শতাধিক অনলাইন নিউজ পোর্টালে বর্বরতা উল্যেখ সংবাদ প্রকাশিত হলে। বিষয়টি জেলা পুলিশ সুপারের নজরে অাসে।

এ নির্যাতনের ঘটনায় শনিবার রাতে আমিন ও লাভলি বাদী হয়ে ভুট্টু সহ অারো ৫ জনের নাম উল্যেখ করে মামলা দায়ের করেন। চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু জানান, স্থানীয়দের মতামতের ভিত্তিতে তাকে শাস্তি দেয়া হয়েছে।