‘ভারত হয়ে এসেছিল গুলশান ও শোলাকিয়ায় হামলার অস্ত্র’


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর- গুলশান ও শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্র ভারত হয়ে বাংলাদেশে এসেছিল বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেররিজম ও ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান ও ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম। সোমবার সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের ডিসির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

1468734072মনিরুল ইসলাম বলেন, গুলশান ও শোলাকিয়ার হামলায় দেশের বাইরে থেকে অস্ত্রের যোগান দেয়া হয়। ভারত হয়ে অস্ত্রগুলো বাংলাদেশে আনা হয়। ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকাগুলো রুট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল। তবে অস্ত্রগুলো ঠিক কোন দেশের তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

তিনি আরও জানান, হুন্ডির মাধ্যমে হামলায় ব্যবহৃত অর্থ দেশে এনেছে জঙ্গিরা। এ দুই হামলার আগে ১৪ লাখ টাকা গ্রহণ করে তারা। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত এখনো জানাতে পারেননি তিনি। এ অর্থ-অস্ত্র কারা প্রথমে প্রেরণ ও গ্রহণ করেছে সে বিষয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান মনিরুল।

মনিরুল বলেন, গুলশান, শোলাকিয়া হামলায় জড়িতদের প্রধান ট্রেইনার ছিলেন আবু রায়হান তারেক। যিনি কিনা গাইবান্ধায় জঙ্গিদের ট্রেনিং দিয়েছেন। তিনি কিন্তু অভিযানে নিহত হয়েছেন।

গত ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা চালায় কয়েকজন বিপথগামী যুবক। ওই ঘটনায় দেশি-বিদেশি ২০ জনকে হত্যা করে জঙ্গিরা। তাদের প্রতিরোধ করতে গিয়ে নিহত হন উচ্চপদস্থ দুই পুলিশ সদস্য। পরে সেনাবাহিনীর কমান্ডো অভিযানে অবসান ঘটে রাতব্যাপী জিম্মি ঘটনার। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ৬ জঙ্গি।