“বাংলাদেশ সফটওয়্যার” বিদেশে কদর পায় তখন দেশের লোক চমকায়

❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৬ ইন্টারনেট রঙ্গ, দেশের খবর, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

(নিউজ ডেস্ক) সময়ের কণ্ঠস্বর : বিদেশে কদর পায় তখন দেশের লোক চমকায়। বাংলাদেশ সফটওয়্যার এর দেশে বিক্রি কমলেও  ক্রমাগত চাহিদা ও বিক্রি বেড়েছে বিদেশে।

ভালমন্দ যেমনই হোক বেশি দামে ঘরে তোলা। বিচিত্র মানসিকতা। ঢাকা-কলকাতার বাঙালি এরকমই। কেনাকাটায় ফরেন গুডস হলেই হল। আর কথা নেই। চমৎকার দেশি জিনিস পাশে থাকলেও নেড়েচেড়ে দেখবে না।

bd-soft-2

বাঙালির অদ্ভুত স্বভাবটাই বিদেশি সংস্থার মূলধন।দাপিয়ে বাণিজ্য করে বাংলাদেশ-ভারতে। এত বড় বাজার পাবে কোথায়। আবার দেশি জিনিস যখন অবাক হয়ে ভাবে,ঘরের জিনিস হেলাফেলা, বিদেশি পণ্যে মনগলা। আমাদের জিনিস আমরা নিচ্ছি না, ওরা নেয় কী করে। একশোর বেশি দেশ বাংলাদেশের সফটওয়্যারের জন্য পাগল। নিচ্ছে চোখ বুজে। গুণের তুলনা নেই। দামে কম। রফতানি বাড়তে বাড়তে ১০০ কোটি ডলারের মুখে।

সফটওয়্যারের সবচেয়ে বড় সংগঠন, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড সার্ভিসেস বা বেসিস-এর সদস্য ১৮৫টি কোম্পানি বিশ্ববাজারে চুটিয়ে ব্যবসা করছে। পাশাপাশি ফ্রিলান্সাররাও রফতানি বাড়াচ্ছে। তার সবটাই বৈধ চ্যানেলে নয় বলে আয়টা অস্পষ্ট। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর হিসেবেও ঠিকঠাক ধরা পড়ছে না। আয় লুকনোর কোনও কারণ নেই। সরকার ট্যাক্স-ভ্যাট কিছুই নেয় না। দরকার শুধু রফতানির বৈধ কাগজপত্র পেশ। তাতেই আলস্য। এ যেন ফ্রি পাস পাওয়ার সুযোগ থাকতেও, না নিয়ে বিনা টিকিটে সফর।