🕓 সংবাদ শিরোনাম

ইসরাইলকে সমর্থন দিয়েছে বিশ্বের ২৫টির মতো দেশ!বাংলাদেশিদের ভালোবাসা দেখে বিস্মিত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূতঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যাত্রী পরিবহনের প্রতিযোগিতায় ট্রাক ও পিকআপখেলার আগে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন কুড়িগ্রামের ক্রিকেটারেরাপাঁচ ঘণ্টা আটকে রেখে থানায় নেওয়া হলো প্রথম আলোর রোজিনা ইসলামকেকর্মস্থলে ফিরতে গাদাগাদি করে রাজধানীমুখী লাখো মানুষশেরপুরে পৃথক ঘটনায় একদিনে ৭ জনের মৃত্যুএক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরব

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

কালিয়াকৈরের মৌচাক-ফুলবাড়িয়া আঞ্চলিক সড়কের বেহাল দশা


❏ শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

আলমগীর হোসেন, কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি- গাজীপুরের কালিয়াকৈরের মৌচাক-ফুলবাড়িয়া-মাওনা সড়কে খানাখন্দের কারনে যানবাহন ও পথচারী চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে মৌচাক পুলিশ ফাড়িরর সামনা থেকে পূর্ব মৌচাক এলাকার দুই কিলোমিটার সড়ক পথচারী চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সড়কটি মেরামতের জন্য এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্র্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়ে আসলেও তারা সড়কটি মেরামতর জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি।

unnamedমৌচাক জাতীয় স্কাউট ক্যাম্প ও ঢাকা-টঙ্গাইল মহাসড়ক থেকে ফুলবাড়িয়া বাজার ২২কিলোমিটার পাকা সড়কে হাজার হাজার গর্তের সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সাভার-নবীনগর থেকে ময়মনসিংহে যাতায়াতের জন্য এসড়কটির গুরত্ব অনেক বেশী। বাস ,ট্রাক, অটোটেম্পো, ভারী যানবাহনসহ শতশত যানবাহনের চালকরা তাদের জীবনের ঝুকি নিয়ে এ সড়ক দিয়ে চলাচল করছে।

রাস্তাটি ভাল থাকলে ফুলবাড়িয়া থেকে মৌচাক যেতে সময় লাগতো মাত্র ৪০মিনিট। কিন্তু বর্তমানে রাস্তাটির বেহাল দশায় এখন সময় লাগে দুই ঘন্টারও বেশি। বিশেষ করে মৌচাক, ভান্নারা, মুরাদপুর, জামালপুর, কলাবাধা শিল্পাঞ্চল হওয়ায় হাজার হাজার শ্রমিক এ সড়ক দিয়ে পায়ে হেটে চলাচল করে। সড়কটি খানাখন্দে নষ্ট হয়ে গর্তে পানি জমে থাকায় শ্রমিকরা পায়ে হেটে পর্যন্ত স্বাভাবিক চলাচাল করতে পারছেনা।

কিছুদিন পুর্বে সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে রাস্তাটি সংস্কারের উদ্দ্যেগ নিয়ে রাস্তার পানি দ্রুত নিস্কাশনের জন্য সড়কের দুইপাশে ড্রেনেজের ব্যবস্থা করা হলেও সড়কের পাশে স্থাপিত শিল্পমালিক ও বাসাবাড়ির মালিকরা ওই ড্রেন বন্ধ করে দেওয়ায় বৃষ্টিা পানি সড়কে জমে সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা অভিযোগ করে বলেন, সড়কের বেহাল দশার কারনে স্কুল কলেজের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে খুব ভোরবেলা তাদের রওনা দিতে হয়। এতে তাদের অনেক সময়ের অপচয় হয়।

এছাড়া মোঃ আনোয়ার হোসেন নামের ব্যাবসায়ী ও লুবনা নামের কারখানার শ্রমিক জানায়, সড়কের বেহাল দশার কারনে তারা খুব বিপদের মধ্যে রয়েছে। কারখানা ছুটি হয় ৪টায় বাড়ি যেতে রাত্রি হয়ে যায়। সড়ক ভাল থাকলে সময় লাগত ১ঘন্টা সড়ক খারাপের কারনে সময় লাগে ৩থেকে সাড়ে ৩ঘন্টা ।

এব্যাপারে কালিয়াকৈর উপজেলা এলজিইআরডি অফিসের প্রকৌশলী সরকার মোঃ সাজ্জাদ কবির জানায়, এ মাসের মধ্যেই সড়কের সংস্কারের কাজ শুর হবে। আশা করছি অল্প সময়ের মধ্যেই রাস্তাটির এ অবস্থার উন্নতি হবে।