পূজামন্ডপের প্রতিমাগুলো এখন রঙের অপেক্ষায়

❏ রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

মোশারফ হোসাইন তযু, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ ঘনিয়ে আসছে বাঙালি হিন্দু সমাজের প্রধান ধর্মীয় ও সামাজিক বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা উৎসব। আর মাত্র কয়েক দিন পরেই শারদীয় দূর্গা উৎসব শুরু হবে জাকজমকপূর্ন ভাবে।

unnamedএই উৎসবের ঘিরেই উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর-সভায় ৪৬ টি দূর্গা মন্দিরে মন্দিরে ব্যস্ত সময় পাড় করছে প্রতিমা তৈরী মৃৎশিল্পীরা। উপজেলার ৪৬ টি মন্দিরে কাঁদামাটি, বাঁশ, খড়, দিয়ে পরম যত্নে দেবীর মুকুট, হাতের বাজু, গলার মালা, শাড়ির পাড়, প্রিন্ট ও ঠাকুরের চুল তৈরির কাজ শেষ প্রায়। এখন মাত্র শুকানোর বাকী, শুকিয়ে গেলে প্রতিমাতে দেওয়া হবে রং তুলির আচঁড়।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, প্রতিমা তৈরীর শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পাড় করছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রতিমা তৈরীর কাজ করেই যাচ্ছে। এ উপজেলা দেশী এবং বেদেশি দূর্গা প্রতিমা তৈরীর শিল্পী আছে। তারাই বর্তমানে মহা আনন্দের মধ্যে দিয়ে প্রতিমা মন্দিরে মন্দিরে প্রতিমা তৈরীতে ব্যস্ত সময় পাড় করছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন, মাওনা , তেলিহাটী, গাজীপুর,বরমী, কাওরাইদ, গোসিংগা, রাজাবাড়ি,ও প্রহলাদপুরে গিয়ে দেখা যায় সব মন্দিরের কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। এখন শুধু রঙয়ের অপেক্ষা ।

শ্রীপুর উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি কৃষাণ লাল চৌহান ও সাধারণ সম্পাদক অরোন চন্দ্র দাস জানান, আসন্ন দুর্গাপূজার সব ধরনের প্রস্ততির কাজ চলছে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বিপুল উৎসাহ-উদ্দিপনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যেদিয়ে পূজা উদযাপনের জন্য ৮টি ইউনিয়নের মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে, শ্রীপুর উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে পূজামন্ডপগুলোকে। পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য থাকবেন নিরাপত্তা কাজে।