মেলার দরপত্র নিয়ে যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের হাতাহাতি

⏱ | সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৬ 📁 দেশের খবর, রংপুর

uuশাহরিয়ার মিম,রংপুর:

রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ আয়োজিত শিল্প ও বাণিজ্য মেলার দরপত্র নিয়ে স্থানীয় যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। পরে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে চেম্বার কর্তৃপক্ষ কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেছেন। রোববার দুপুরে জাহাজ কোম্পানী মোড়ের চেম্বার ভবনের কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও চেম্বার সূত্রে জানা গেছে, চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর পক্ষ থেকে প্রতিবছরের মত এবারও রংপুরে শিল্প ও বাণিজ্য মেলার জন্য দরপত্র আহবান করা হয়। আগামী নভেম্বরে মাসব্যাপি এ মেলা পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে হওয়ার কথা। এদিকে, রোববার দুপুরে প্রকাশ্য ডাকের মাধ্যমে দরপত্র নিয়ে আলোচনা করার সময় রংপুর যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় দেশিও অস্ত্র নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মহড়া দিতে দেখা যায়। হাতাহাতি ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় দুই পক্ষের অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক লক্ষিণ চন্দ্র জানান, টেন্ডার প্রক্রিয়া যাতে সুষ্ঠু হয় আমরা এ নিয়ে আলোচনা করতে গিয়েছিলাম। কিন্ত সেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা আমাদের বাধা দেওয়ায় উত্তেজনা দেখা দেয়। এ ব্যপারে জানতে জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক কামরুজ্জামান শাহীনের সাথে জানতে চাইলে তার মুঠো ফোনটি রিসিভ করা হয়নি।অপরদিকে এ ব্যপারে মহানগর যুবলীগের আহবায়ক বাসার বলেন বৈঠক চলার সময় কথাকাটি হয়েছে,তবে বড় কোন সমস্যা হয় নি। অপরদিকে মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী তুহিন জানান,আমাদের দাবি ছিল বানিজ্য মেলার দায়িত্ব যেন স্থানীয়রা পায়।

কিন্তু যুবলীগের নেতৃবৃন্দ দিনাজপুরের বিএনপির এক নেতার পক্ষে কাজ করায় আমরা প্রতিবাদ করেছিলাম।তিনি আরো জানান ওপেন বিট চলাকালে সবার মধ্য থেকে রংপুরের দাবিটা উঠে আসে।তারপর এ নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। কোতয়ালী থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওলিউর রহমান জানান, দু পক্ষের মধ্যে সামান্য উত্তেজনা দেখা দিয়েছিল। আমারা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে দুই পক্ষই শান্ত হয়। রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট আবুল কাসেম জানান, মাসব্যাপি শিল্প ও বাণিজ্য মেলার দরপত্র নিয়ে আগ্রহীদের সাথে চেম্বার ভবনে কথা হচ্ছিল। এসময় অংশগ্রহণকারিদের মধ্যে উত্তেজনা,বাকবিন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ফলে আমরা মেলার কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করেছি।