• আজ বৃহস্পতিবার, ৩০ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ১৩ মে, ২০২১ ৷

এমন পরিস্থিতিতে কিভাবে ম্যাচ বের করতে হয় তা আমরা জানিঃ সাকিব


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৬ খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – তাসকিনের শেষ দিকে জ্বলে ওঠা। আর তার শেষ দুই ওভারে ৪ উইকেট দখল? আর সাকিবের ৪৭ নম্বর ওভারে মাত্র ১ রান দেয়া, এমন এক জয়ে কার ভুমিকা বেশি? রাতে সাকিবের হাতে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার দেখে হয়ত সে প্রশ্নই ঘুরে-ফিরেছে সবার কাছে।

তবে সাকিব নিজেই জানিয়ে দিয়েছেন কার ভুমিকা বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। চ্যাম্পিয়ন অলরাউন্ডারের অনুভব, তার নিজের ভুমিকাই বড়। ম্যাচ শেষে অফিসিয়াল মিডিয়া সেশনে সাকিবের সোজা-সাপ্টা কথা, ‘৪৭ নম্বর ওভারে এক রান দেয়াই শুধু নয়, রহমত শাহ ও হাশমতুল্লাহর বড় জুটি ভাঙ্গাও ম্যাচ ঘোরানোর পেছনে বড় ভুমিকা রেখেছে।’

শেষ পর্যন্ত জিতলেও টাইগারদের পারফরমেন্স প্রত্যাশার মাত্রা স্পর্শ করতে পারেনি। সাকিব অকপটে তা স্বীকার করেছেন। এমন অনুজ্জ্বল ও ফ্যাকাসে পারফরমেন্সের কারণও চিহ্নিত করেছেন। তার বদ্ধমুল ধারনা, সেই গত বছর নভেম্বর থেকে আর ওয়ানডে না খেলার কারণে কিছু জড়তা ছিল।

sakin-win-trofi

সাকিবের ব্যাখ্যা, ‘আসলে যে যাই বলুক, ১০/১১ মাস ওয়ানডে না খেলার একটা নেতিবাচক প্রভাব এই পারফরমেন্স। দীর্ঘ সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না খেলায় কিছু জড়তা কাজ করেছে। শরীরি ভাষায়ও তা বোঝা গেছে। তবে এটা ম্যাচ খেলতে খেলতে কেটে যাবে। দ্রুত ছন্দ ফিরে আসবে।’

মাত্র ৪৮ ঘন্টা আগে বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে মাঠে নেমেছিলেন তাসকিন আহমেদ। তার জন্য কাজটা কতখানি কঠিন ছিল? এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব বলেন, ‘কঠিন অবশ্যই। তবে তাসকিনের একার জন্য নয়। ইনজুরি থেকে ফেরা রুবেলও শুরুতে নিজেকে খুঁজে পায়নি। তাসকিনের মত রুবেলও প্রথম দিকে ভাল বল করেনি। যত সময় গড়িয়েছে দুজনার বলের ধার তত বেড়েছে।’

আফগানদের পারফরমেন্সের প্রশংসা করে সাকিব বলে ওঠেন, আমার মনে হয় শেষ পর্যন্ত আমাদের অভিজ্ঞতার কাছে হেরেছে ওরা। অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েই জিতেছি আমরা। আমরা জানি এমন পরিস্থিতিতে কি করতে হয়, কিভাবে ম্যাচ বের করা যায়।

এই বিভাগ থেকে আরও পড়ুন :