🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

অবশেষে দাফনের আগে কেঁদে ওঠা ফরিদপুরের সেই শিশুটি মারা গেছে


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: অবশেষে দাফনের আগে কেঁদে ওঠা শিশু গালিবা হায়াত গতকাল রবিবার রাত ১০.৫৫ মিনিটের সময় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ আফতাব ইউসুফ রাজ এ কথা জানিয়েছেন।

galiba-hayat

গালিবা হায়াতের পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা ওই চিকিৎসক বলেন, এই ধরণের শিশুকে স্বাভাবিক ডেলিভারি বলা যায় না। এটি মূলত অ্যাবসনের মতো। অপরিণত অবস্থায় জন্ম নেওয়ায় শিশুটির শরীর ভাল নেই। নবজাতক শিশুটি জন্ম গ্রহণের পর অযত্ন-অবহেলা এবং কবরস্থানের মতো জায়গায় নেওয়ায় ইনফেকশন হয়েছে। শরীরীরে রক্ত রাখা যাচ্ছে না। জন্মের পর উন্নত চিকিৎসা দেওয়া হলে এ ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতো না বলেও জানান তিনি।

শিশুটিকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছে বলেও জানান। চিকিৎসকদের পরামর্শে শনিবার সন্ধ্যায় নৌ বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোলায়মান সুখন নামের এক ব্যক্তি ও তার দুই বন্ধুর সহায়তায় শিশুটিকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়ে ছিল। পরে শিশুটিকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে শিশুটি নিবির পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। শিশুটির বাবা ঢাকা ডিভিশনের প্রথম বিভাগের ক্রিকেটার নাজমুল হুদা মিঠু ও মা অ্যাডভোকেট নাজনীন আক্তার ফরিদপুর শহরের কমলাপুর এলাকার বাসিন্দা।

গালিবা হায়াত এ দম্পতির প্রথম সন্তান। আগামী জানুয়ারি মাসে ভূমিষ্ঠ হওয়ার কথা থাকলেও শিশুটি ৫ মাস ২২ দিনের মাথায় গত বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ভূমিষ্ঠ হয়। জন্মের পর শিশুটিকে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন ডাঃ জাহেদ মেমোয়িলাল শিশু হাসপাতালের গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাঃ রিজিয়া আলম। পরদিন সকাল ৬টার দিকে শহরের আলীপুর কবরস্থানে দাফন করার সময় শিশুটি কেঁদে ওঠে।