'পায়রা নদীতে সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করে দিয়েছি'


❏ সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুসারে সেতু তৈরির কাজ শুরু করে দিয়েছি। আগামী সপ্তাহে ফিজিবিলিটি পর্যবেক্ষণের জন্য একটি টিম মির্জাগঞ্জে যাবে। সোমবার রাজধানীর মিরপুরে গাবতলী-সিন্নিরটেক সড়ক উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

obaidul-quader-111সেতুমন্ত্রী বলেন, চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শীর্ষেন্দুর চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে পায়রা নদীর ওপর সেতু নির্মাণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, পায়রা নদী প্রচণ্ড খরস্রোতা এবং প্রশস্ত নদী। এখানে দীর্ঘ লেনের ব্রিজ তৈরি করতে হবে। এ কারণে সময় লাগবে। কাজ শুরু করেছি, আশা করি দেড় বছরের মধ্যে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

পটুয়াখালী সরকারি জুবিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শীর্ষেন্দু বিশ্বাসের গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে যাওয়ার পথে পায়রা নদীতে একটি সেতু নির্মাণের অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিল গত অাগস্টে। ওই চিঠি পেয়ে সেখানে সেতু নির্মাণের আশ্বাস দিয়ে জবাব পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, যা আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে চিঠি হস্তান্তর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক একেএম শামীমুল হক সিদ্দিকী নিজ হাতে শীর্ষেন্দুর হাতে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া চিঠি তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী ওই চিঠিতে লিখেছেন- 'স্নেহের শীর্ষেন্দু আমার স্নেহাশীষ নিও। তোমার চিঠি পেয়ে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। তুমি শুধু এদেশের একজন সাধারণ নাগরিক নও বরং ভবিষ্যত প্রজন্মের এবং দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নেয়ার অগ্রজ সৈনিক। আমি জানি পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার পায়রা নদীটি অত্যন্ত খোরস্রোতা। নিজের পিতা-মাতাসহ অন্যান্য পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এই নদীকেন্দ্রিক তোমার নিরাপত্তা সচেতনতা আমাকে মুগ্ধ করেছে। আমি বুঝতে পারি তোমার বীর মুক্তিযোদ্ধা দাদুর প্রভাব রয়েছে তোমার ওপর। মির্জাগঞ্জের পায়রা নদীতে একটি সেতু নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তোমাকে আশ্বস্ত করছি। তোমার সার্বিক মঙ্গল কামনা করি। আমার দোয়া নিও। তোমার বাবা-মাসহ মুরুব্বিদের সালাম ও ছোটেদের দোয়া দিও। অনেক অনেক আদর নিও। শেখ হাসিনা।'