পরোক্ষ ধূমপান থেকে অধূমপায়ীদের বাঁচাতে আইনের সুষ্ঠ প্রয়োগ দরকার

❏ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬ দেশের খবর

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –   বাংলাদেশে প্রতিদিন ধূমপান ও তামাক ব্যবহারজনিত অসুখে ১৫৬ জন মৃত্যুবরণ করে। মৃত্যুর এই হার গভীর উদ্বেগজনক। ধূমপান ও তামাক নিয়ন্ত্রন আইন প্রণয়ন ও বিধিমালা প্রণীত হলেও তামাক কোম্পানীর কূট কৌশলের কারনে আজও পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিহণে ধূমপানমুক্ত পরিবেশ বাস্তবায়ীত হয়নি।

madok

এ দিকে কর্তৃত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার অবহেলার কারনে দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ফসল ধূমপান ও তামাক নিয়ন্ত্রন আইন সংশোধন হলেও নেই এর যথাযথ প্রয়োগ।

গতকাল তামাক নিয়ন্ত্রণে গঠিত কোয়ালিশনের বাৎসরিক কর্মপরিকল্পনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন। বক্তারা বলেন তামাক নিয়ন্ত্রন আইনে তামাক পণ্যের সকল ধরনের বিজ্ঞাপন, বিতরণ ও বিপণন নিষিদ্ধ, আইন ভঙ্গ করলে পাবলিক প্লেস ও গণপরিবহনর কর্তৃপক্ষের উপর জরিমানার বিধান থাকলেও তা অনুসরন করা হচ্ছে না। বক্তারা পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহকে ধূমপানমুক্ত করতে স্থানীয় সরকারের ধূমপানমুক্ত গাইড লাইন বাস্তবায়নের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তাঁরা আইনের লঙ্ঘন কমাতে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনার দাবী করেন। অপ্রাপ্তবয়স্কদের কাছে ও তাদের দ্বারা ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের বিক্রয়, বিপনন ও বিতরণ নিষিদ্ধের আইনী বিধানটি কঠোরভাবে মেনে চলার আহ্বান জানান।

ঠাকুরগাঁও তামাক নিয়ন্ত্রন কোয়ালিশন ও মানবাধিকার সংগঠন এ্যাসোসিয়েশন ফর কম্যুনিটি ডেভেলপমেন্ট-এসিডি’র উদ্যোগে কর্মপরিকল্পনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ঠাকুরগাঁও তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশনের সদস্য মো: আব্দুল লতিফ। এসিডির এডভোকেসি অফিসার শরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কোয়ালিশন সদস্য আবুবক্কর সিদ্দিক, দৈনিক জনকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি এস এম জসিম, এন্টি টোব্যাকো মিডিা এলায়েন্স আত্মার সদস্য সমকাল জেলা প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান আসাদ, দৈনিক অর্থনিতির সাইফুল ইসলাম প্রবাল, উপমা পল্লী উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফারজানা আক্তার, সময়ের কন্ঠস্বর জেলা প্রতিনিধি মাহবুব আলম রুবেল, এসিডির প্রোগ্রাম অফিসার মতিউর রহমান মিঠু প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে প্রতিবছর শতকরা ৫৮ জন পুরুষ ও ২৯ জন নারী ধোঁয়াযুক্ত এবং ২৮ জন নারী ও ২৬ জন পুরুষ ধোঁয়াবিহীন তামাক ব্যবহার করেন। এর মধ্যে ১৩-১৫ বয়সের শতকরা ৭ জন কিশোর-কিশোরী নতুন করে তামাকের প্রতি আসক্ত হচ্ছে। প্রতি বছর ১২ লক্ষ মানুষ তামাকজনিত রোগ যেমন ফুসফুসের ক্যান্সার, মস্তিষ্কের রক্তক্ষরন, হৃদরোগ, শ্বাসজনিত সমস্যা আরও বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। ২০১৩ সালে সংসদে সংশোধিত আকারে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন পাশ হলেও যথাযথ প্রয়োগের অভাবে একদিকে কিশোর-কিশোরীদের মাধ্যে ধূমপায়ীর সংখ্যা যেমন বাড়ছে অন্যদিকে পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহনে অধূমপায়ীরা পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হচ্ছে। সভায় ঠাকুরগাঁও তামাক নিয়ন্ত্রণ কোয়ালিশন আগামী ছয় মাসে বিভিন্ন ধরনের ক্যাম্পেইনমূলক প্রোগ্রাম, প্রশাসনের সাথে মতবিনিময় সভা, ক্লাস ক্যাম্পেইন, পৌরসভার গাইডলাইন বাস্তবায়নে পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা ইত্যাদি কাজের পরিকল্পনা গ্রহণ করেন এবং সে অনুযায়ী কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।