🕓 সংবাদ শিরোনাম

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে আমিরাতে সাংবাদিকদের প্রতিবাদ সভারোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফআর এমন ভুল হবে না: নোবেলস্বেচ্ছায় কারাবরণের আবেদন নিয়ে থানায় অনুসন্ধানী সাংবাদিকেরাইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতিযমুনা নদীতে ডুবে তিন কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

সীমান্তে ঢুকে পড়ার পর ভারতীয় সেনার চোখ রাঙানিতে শেষ পর্যন্ত পিছু হটেছে চীনের সেনা


❏ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক -    ভারতের পূর্বাঞ্চলের রাজ্য অরুণাচল প্রদেশের সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতের মধ্যে ঢুকে পড়েছিল চীনের সেনা বাহিনী। চলতি মাসের প্রথম দিকে অরুণাচল প্রদেশের পাম পোস্ট এলাকার ৪৫ কিলোমিটারের মধ্যে চীনের ড্রাগন সেনা ঢুকে পড়ে শিবির স্থাপন করে সামরিক মহড়া দিচ্ছিল। পরে ভারতীয় সেনার চোখ রাঙানিতে শেষ পর্যন্ত পিছু হটেছে বলে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়েছে।

chiner-sena
ইন্ডিয়া ডটকমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, অরুণাচলের অনজো জেলার মধ্যে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে পড়ে ড্রাগন সেনার একটি দল। শুধু তাই নয়, সেখানে তারা একটি আস্তানাও গড়ে ফেলে এবং দাবি শুরু করে, পাম পোস্ট এবং তার আশপাশের এলাকা চীনের সীমানার মধ্যে পড়ে। নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে চীনের সেনা ওই আস্তানা গড়েছিল। এ খবর পেয়ে ভারতীয় সেনা গিয়ে হাজির হয়। নিয়ন্ত্রণরেখার মধ্যে ৪৫ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে এসে, কেন আস্তানা গড়েছে চীন, সে বিষয়ে প্রশ্ন শুরু করে ভারতীয় সেনা। কিন্তু ভারতীয় সেনার চোখ রাঙানিতে শেষ পর্যন্ত পাম পোস্ট এলাকা ছেড়ে চলে যায় চীনের সেনা। কিন্তু ওই এলাকা বলে দাবি শুরু করে তারা।
স্থাানীয়দের বরাতে পত্রিকাটি জানায়, প্রতি বছরই কমপক্ষে ২-৩ বার ওই এলাকায় চীনা সেনা নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে। কিন্তু এ বছরই প্রথম ড্রাগন সেনা নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতের সীমানার প্রায় ৪৫ কিলোমিটার এলাকার ভিতরে ঢুকে পড়ে। যা নিয়ে স্থানীয়রাও চিন্তায় পড়ে যান।
গত ৯ সেপ্টেম্বর পাম পোস্ট এলাকায় ঢুকে পড়ে চীনা বাহিনী । এরপর ১৩ সেপ্টেম্বর ওই এলাকা ছেড়ে চলে যায় তারা। ১৪ সেপ্টেম্বর ভারত এবং চীনের সেনার মধ্যে ফ্ল্যাগ মিটিংয়ের আগেই ওই অঞ্চল ছেড়ে চীনের সেনারা চম্পট দেয় বলে জানায় ওয়ান ইন্ডিয়া।
অন ইন্ডিয়া জানায়,লাদাখে চীনের দিকে তাক করে ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করার পর থেকেই বেজিংয়ের কপালে ভাঁজ পড়তে শুরু করে। ভারতের ওই ক্রুজ মিসাইল বেজিংয়ের চিন্তা বাড়িয়ে দিচ্ছে বলে দাবি করা হয়। কিন্তু লাদাখ থেকে ব্রহ্মস সরানো হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় ভারতীয় সেনা। আর তারপরই ভারতের দিকে তাক করে তিব্বত প্রদেশের যুদ্ধ বিমান মোতায়েন করে চীন। ভারতের ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্রের জেরে তিব্বত এবং ইউনান প্রদেশের মনুষের মধ্যে যে আতঙ্ক সৃষ্টি হচ্ছিল, তা কাটাতেই ভারত সীমান্তে ওই যুদ্ধ বিমান মোতায়েন করা হয়েছে বলে স্পষ্ট জানিয়েছে বেজিং।