🕓 সংবাদ শিরোনাম

রোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফআর এমন ভুল হবে না: নোবেলস্বেচ্ছায় কারাবরণের আবেদন নিয়ে থানায় অনুসন্ধানী সাংবাদিকেরাইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতিযমুনা নদীতে ডুবে তিন কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতাকে তথ্য চুরি বলা হচ্ছে, এর চেয়ে দুঃখ আর নেই’

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

শায়েস্তাগঞ্জে সড়ক ও জনপথের শত শত কোটি টাকার সম্পদ বে-দখল


❏ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬ দেশের খবর, সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: শায়েস্তাগঞ্জে সড়ক ও জনপথের শত শত কোটি টাকার সম্পদ দিনে দিনে বে-দখল হয়ে গেছে। সড়ক ও জনপথের ঐসব দখলকৃত জমিতে গড়ে উঠেছে মার্কেট ও বাসা বাড়ি। শায়েস্তাগঞ্জ থানার পৌরসভার ভিতরে ষ্টেশন পুরান বাজার সড়কের দুই পাশেই সড়ক ও জনপথের কোটি কোটি টাকার নিজস্ব ভূমি রয়েছে। সড়ক ও জনপথের ঐসব ভূমি বহুদিন যাবৎ পরিত্যাক্ত থাকলেও কয়েক বছর ধরে ঐ ভুমি দখল করে নিয়েছে ভূমিদস্যুরা।

usad

এদিকে উদাসীন শায়েস্তাগঞ্জ সড়ক ও জনপথের কর্মকর্তারা। দেখা গেছে কোন কোন জায়গায় দখল করে মাটি ভরাট করে রাতারাতি ঘর, বাসা বাড়ী ও দোকান পাট নির্মাণ করা হয়েছে। মাঝে মধ্যে লোক দেখানো উচ্ছেদ অভিযান হলেও কিছুদিন যেতে না যেতেই ঐসব উচ্ছেদকৃত জায়গায় পুনারায় নির্মাণ করা হয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। সরজমিনে ঘুুরে দেখা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জ সড়ক ও জনপথের দখলকৃত জায়গার এক চিত্র। শায়েস্তাগঞ্জ পুরাবাজার বটতলা, বছর খানেক আগে সড়ক ও জনপথের উদ্যাগে দখলকৃত স্থাপনা উচ্ছেদ করা হলেও কিছুদিনের মধ্যেই আবার নির্মিত হয় সেই সকল অবৈধ স্থাপনা। এদিকে মোনালিসা সিনেমা হলের দক্ষিণে লেঞ্জাপাড়া মৌজার জে এল নং ১৫৯, খতিয়ান নং ২, দাগ নং ১১১১ বর্তমানে হাল দাগ ১২৭৮ দাগে মাঠ জরিপের নকশা অনুযায়ী প্রায় সাড়ে ৪ একর ভূমির খাজনা দিচ্ছে সড়ক ও জনপথ।

শায়েস্তাগঞ্জ ভূমি অফিসে গিয়ে দেখা গেছে, ঐ দাগের খাজনা দিচ্ছে সড়কও জনপদ অথচ সরেজমিনে দেখা গেছে খালি ভূমি বলতে কিছুই নেই। এতে গড়ে উঠেছে টিনসেড মার্কেট যা ভূয়া দলিলের মাধ্যমে এক প্রবাসী দখল করে রেখেছে বলে জানা গেছে। কিভাবে সড়ক ও জনপথের জায়গার ভূয়া দলিল হয় তা অনেকেরই প্রশ্ন মার্কেটটির পাশেই সওজের বর্তমান কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত কিছু কর্মকর্তা যারা শায়েস্তাগঞ্জ স্থানীয় বাসিন্দা হওয়া সত্ত্বেও সওজের খালি জাযগায় বাসা বাড়ি নির্মাণ করে ভাড়া দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা লুটেপুটে খাচ্ছে।

একটি সূত্রে জানা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ সড়ক ও জনপথের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ শিকদার বিগত ২৫ বছর ধরে ঐ এলাকায় বসবাস করত। তার বাসার পিছনে বড় বড় গাছ কেটে কাঠ বানিয়ে বরিশারে নিয়ে গেছে তার নিজ বাড়িতে। এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ সড়ক ও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা শাহ আলম এর সাথে মোবাইল ফোনে দখলকৃত ভূমি বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন উনি আসার আগে দখল হয়ে গেছে। যেহেতু সড়ক ও জনপথের ভূমির অবৈধ স্থাপনা তাই দখলদারদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সদর দপ্তরের সামনের খলি জায়গায় টং দোকান নির্মাণ উত্তর পাশে মাটি ভরাট করে গাছ লাগানো হয়েছে।

ইতিমধ্যে অনুসন্ধানে আর একটি বিষয় জানা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ দাউদনগর বাজার আখি ইলেকট্রনিক্স এর দোকন ঘরসহ তার পিছনের ডোবাটি ভরাট করে বিল্ডিং নির্মাণ করে ভাড়া দিয়ে রেখে দখলদাররা কিভাবে সওজের শত শত কোটি টাকার সম্পদ বেদখল হলো তা স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রশ্ন। সড়ক ও জনপথের কার্যালয়ের গেইটের সামনে ও দখল করে দোকানঘর নির্মাণ করা হয়েছে। আদৌ কি ঐ সব দখলকৃত জায়গা সড়ক ও জনপথ দখলমুক্ত করতে পারবে কি না এটাই এখন দেখার বিষয়।