• আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

সৈয়দ শামসুল হকের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত


❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর- চ্যানেল আইয়ের কার্যালয়ে চিরবিদায় নেয়া সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের প্রথম জানাযা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১০টায় তেজগাঁওয়ে চ্যানেল আইয়ের কার্যালয়ে আনা হয় দেশ বরেণ্য এ কবির মরদেহ।

028ba647afb4c25a551adae0a1e292f0-57ea6bbb49b9e১০টা ৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় তার প্রথম নামাজে জানাযা। জানাযা শেষে এখান থেকে বাংলা একাডেমিতে নেয়া হয়েছে সৈয়দ হকের মরদেহ। সেখানে সর্বস্তরের জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের পর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হবে তার মরদেহ।

শ্রদ্ধা জানানো শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে নেয়া হবে কবিকে। দুপুরে জোহরের নামাজের পর অনুষ্ঠিত হবে কবির আরেকটি জানাজা। এপর দাফনের জন্য সৈয়দ হকের মরদেহ কুড়িগ্রামে নেয়া হবে। সেখানে নিজের নামে বরাদ্দ করা জমিতে সমাহিত হবেন সব্যসাচী এই লেখক।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন সৈয়দ শামসুল হক। তিনি ফুসফুসের ক্যানসারে ভুগছিলেন। সৈয়দ হকের বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। তিনি স্ত্রী আনোয়ারা সৈয়দ হক এবং এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

সৈয়দ শামসুল হকের জন্ম কুড়িগ্রামে, ১৯৩৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর। কবিতা রচনার মধ্য দিয়ে তার সাহিত্য জীবনের শুরু;  এরপর গল্প, উপন্যাস, কাব্যনাট্য, প্রবন্ধ, শিশুসাহিত্য, অনুবাদ, স্মৃতি, ভ্রমণ, চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য ও সঙ্গীত রচনাসহ সাহিত্যের এমন কোনো শাখা নেই যেখানে সৈয়দ শামসুল হক তার অসামান্য মেধা ও মননের স্পর্শ রাখেননি। ১৯৫৮ সালে ১৮ বছর বয়সে 'একদা এক রাজ্যে' তার প্রথম প্রকাশিত কাব্য। এরপর একটানা ৬০ বছর ধারাবাহিকভাবে তার কমপক্ষে ৩ শতাধিক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। সাহিত্য রচনাকেই তিনি জীবনের একমাত্র কাজ হিসেবে গ্রহণ করেন। সৈয়দ হক স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদকসহ, দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ সম্মাননায় ভূষিত।