সংবাদ শিরোনাম

পণ্যবাহী ট্রাক-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১খালেদার জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি নেই, হয়নি বিদেশ যাওয়ার সিদ্ধান্তওপ্রধানমন্ত্রী কোরআন-সুন্নাহর বাইরে কিছু করেন না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীমির্জাপুরে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনশনিবার থেকে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনাস্পুটনিক-৫ টিকা একে-৪৭’র মতো নির্ভরযোগ্য: পুতিনডোপটেস্টো রিপোর্ট: স্পিডবোটের চালক শাহ আলম মাদকাসক্তচাঁদপুরে ঐতিহাসিক বড় মসজিদে লক্ষাধিক মুসল্লির সালাতে ‘জুমাতুল বিদা’ রাঙামাটিতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ দুই চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আটক! আনসার ব্যাটালিয়ান সদস্যদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ : নারীসহ ৯জন আহত

  • আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানে সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যাচ্ছে না বাংলাদেশসহ চার দেশ

১১:৪৮ পূর্বাহ্ন | বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- চলতি বছরের নভেম্বরে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে অনুষ্ঠিতব্য ১৯তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যাচ্ছে না বাংলাদেশ। মঙ্গলবার রাতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন। পাশাপাশি ভারতের গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এক খবরে জানায়, ভারত, আফগানিস্তান ও ভুটান সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ec48af3dffd8238e74f48dccc99e6642-untitled-1সার্ক সনদ অনুযায়ী শীর্ষ সম্মেলনে সদস্যভুক্ত সব ক’টি দেশের সরকার বা রাষ্ট্র প্রধানদের উপস্থিতি আবশ্যক। কোনো একটি দেশ অংশ না নিলে শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে পারে না। এ কারণে আগামী ৯ ও ১০ নভেম্বর সার্ক শীর্ষ সম্মেলন স্থগিত করতে বাধ্য হবে পাকিস্তান।

বাংলাদেশের সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে কাঠমান্ডুতে সার্ক সচিবালয়ে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপও সার্ক সম্মেলনে ভারতের যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্তটি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

বিকাশ স্বরূপ মঙ্গলবার তার টুইটারে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ভারতে সার্কের বর্তমান প্রধান নেপালের কাছে জানিয়েছে আন্তঃসীমান্ত অঞ্চলে সন্ত্রাসী হামলা বৃদ্ধি এবং অভ্যন্তরীণ বিষয়ে লাগাতার একটি সদস্যদেশের হস্তক্ষেপের ফলে যে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে, তা ১৯তম সার্ক সম্মেলন করতে ইসলামাবাদের জন্য সহায়ক নয়।’

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ভারত অধিকৃত কাশ্মিরের সেনাঘাঁটিতে চলতি মাসের ১৮ তারিখের হামলাকে কেন্দ্র করে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যকার সম্পর্ক চরমে পৌঁছায়। এরই পরিপ্রেক্ষিতেই ভারতের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘একটি দেশ’ এমন পরিস্থিতি তৈরি করেছে যা সার্ক সম্মেলন সফল হওয়ার জন্য সহায়ক নয়।

অন্যদিকে পাকিস্তানের সাথে সার্কের দুই সদস্য রাষ্ট্র বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সম্পর্কও এখন বেশ নাজুক অবস্থায় রয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ইস্যুতে বাংলাদেশের সাথে ও তালেবানদের মদদ দেয়ার অভিযোগে আফগানিস্তানের সাথে পাকিস্তানের সম্পর্কের টানাপড়েন চলছে। এই অবস্থায় ভারত দুই দেশকে সাথে নিয়ে ইসলামাবাদ শীর্ষ সম্মেলন বয়কটের মাধ্যমে পাকিস্তানকে একটি কড়া জবাব দিয়েছে। আর এই প্রচেষ্টায় ভুটানকেও সাথে নিতে সক্ষম হয়েছে।

বাংলাদেশ-ভারতের পাশাপাশি আফগানিস্তান এবং ভুটানও ইসলামাবাদের সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

এদিকে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসির জাকারিয়া তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, সার্ক সম্মেলনে যোগ না দেওয়ার ব্যাপারে ভারতের মুখপাত্রের টুইট তাঁরা দেখেছেন। তবে এ ব্যাপারে ভারত আনুষ্ঠানিকভাবে পাকিস্তানকে কিছু জানায়নি। ভারতের এই ঘোষণাকে দুর্ভাগ্যজনক বলে উল্লেখ করে তিনি।

নাসির জাকারিয়া আরও লিখেছেন, পাকিস্তান শান্তি ও আঞ্চলিক সহযোগিতার প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা এই অঞ্চলের জনগণের বৃহত্তর স্বার্থে কাজ করে যাব।’