পৃথিবীর ভবিষ্যত মারাত্মক হুমকির মুখে মহাকাশে পাড়ি না দিলে মুছে যাবে চিহ্ন মানব জাতির-হকিং  


❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – বৈশ্বিক উষ্ণতার পাশাপাশি পরমাণু যুদ্ধ, জেনেটিক রূপান্তরের মাধ্যমে সৃষ্ট ভাইরাসসহ অন্যান্য বিপদের কারনে  পৃথিবীতে মানব জাতির ভবিষ্যত মারাত্মক হুমকির মুখে পড়েছে এবং মহাকাশে পাড়ি না দিলে মানব জাতির চিহ্ন মুছে যাবে। বিশ্বখ্যাত তাত্ত্বিক পদার্থবিদ স্টিফেন উইলিয়াম হকিং এ হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

 

howking
নতুন বই ‘হাউ টু ম্যাক এ স্পেসশিপ’এ আশংকা ব্যক্ত করেন তিনি। সাংবাদিক জুলিয়ান গোথারি’র লেখা বইটির উপসংহারে এ সব কথা বলেন স্টিফেন হকিং। তিনি বলেন, পৃথিবীতে মানব জাতির সময় খুবই সীমিত হয়ে পড়েছে। মারাত্মক অসুখ-বিসুখ এবং যুদ্ধের হুমকির কারণে পৃথিবী মানুষের জন্য হুমকি হয়ে উঠেছে বলে জানান তিনি।
হকিং বলেন, মানুষের অস্তিত্বের প্রতি হুমকি হয়ে উঠতে পারে এমন নতুন নতুন পদ্ধতি নিয়ে আসতে পারে বিজ্ঞান। তিনি আরো বলেন, এটি প্রায় নিশ্চিত যে ভয়াবহ প্রযুক্তি বিপর্যয়ের ফলে আগামী এক থেকে ১০ হাজার বছরের মধ্যে হুমকির মুখে পড়বে মানবজাতি।
বৈশ্বিক উষ্ণতার পাশাপাশি পরমাণু যুদ্ধ, জেনেটিক রূপান্তরের মাধ্যমে সৃষ্ট ভাইরাসসহ অন্যান্য বিপদ ক্রমেই মানব জাতিকে পুরোপুরি নির্মূল হওয়ার পথে ক্রমেই ঠেলে দিচ্ছে বলে ধারণা ব্যক্ত করেন তিনি।
এ অবস্থায় মহাকাশে পাড়ি না জমালে মানব জাতির আর কোনো ভবিষ্যত নেই বলেও মনে করেন ৭৪ বয়সী বিজ্ঞানী হকিং। মানুষের নাম-নিশানা রোবট মুছে দিতে পারে এবং মানব জাতিকে মহাকাশে পাড়ি জমাতে হবে বলে এর আগেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছিলেন তিনি।

উৎস -পারসটুডে।