সংবাদ শিরোনাম

করোনায় মারা গেলেন নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন মাসুক হাসানলকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সড়কে দীর্ঘ যানজট!৬ বছরের ছেলে সাহেলের প্রথম রোজা, আপ্লুত মাশরাফিকোরআন তেলাওয়াত, ইবাদতে প্রথম রোজা কেটেছে খালেদারভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্র

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চলছে ইলিশ প্রজনন মৌসুমের অবরোধ : জেলেদের নিয়ে চলছে ইলিশ প্রজনন উৎসব

৬:১২ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৬ দেশের খবর, বরিশাল

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি: জলবায়ূ প্রবাহ, পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত, উজানের মিষ্টি পানির প্রবাহ থাকায় পটুয়াখালী সংলগ্ন সমুদ্রে এবার ধরা পড়েছে প্রচুর ইলিশ। দীর্ঘ অনেক বছর পর ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালী ইলিশ ধরা পড়ায় খুশী মৎস্যজীবি ও মৎস্য ব্যবসায়ীরা। তাই ইলিশের চলমান প্রজনন মৌসুমে অবৈধভাবে মাছ শিকারে নেই কোন আগ্রহ। তারা এখন ব্যস্ত ইলিশ প্রজনন উৎসব পালনে।

masar-tolar

দীর্ঘ অনেক বছর পর প্রচুর ইলিশ পাওয়ায় হাসির ঝিলিক পটুয়াখালীর জেলেদের মুখে। আর এনিয়ে বেচা-বিক্রিতে জমজমাট ছিল মৎস্য বন্দর আলীপুর-মহিপুর ও কুয়াকাটার মাছের অড়ৎগুলোতে। কিন্তু ইলিশের নির্বিঘ্ন প্রজননের জন্য ২২ দিন ব্যাপী অবরোধে বর্তমান চিত্র সম্পূর্ন ভিন্ন। ফলে মৎস্য বন্দরের শিববাড়িয়া নদীর দুই তীরে নোঙর করে আছে শত শত  ট্রলার। আড়ৎগুলো নেই প্রানচাঞ্চল্য। বরফকল গুলো রয়েছে বন্ধ। জেলেদের অধিকাশংই ব্যস্ত জাল মেরামত নিয়ে। আর জালের উপকরন বিক্রেতারা পার করছেন অলস সময়।

তবে এবারই প্রথম অবরোধকালীন সময়ে মাছ ধরায় উপকূলীয় জেলেদের মাঝে নেই কোন আগ্রহ। আলীপুর জেলে আবাসন পল্লীর বাসিন্দা জেলে আবুল হোসেন বলেন, বিগত বছরে কড়াকড়ি অবরোধ আরোপের ফলে চলতি মৌসুমে সাগরে ধরা পড়েছে প্রচুর ইলিশ। তাই ইলিশের সঠিক প্রজননের জন্য মাছ শিকার না করে ইলিশ রক্ষায় ভূমিকা রাখতে চান তারা। একই কথা জানান এখানকার অনেক জেলে।

আর এ বছরই প্রথম অবরোধকালীন সময়ে জেলে এবং তাদের পরিবার নিয়ে আয়োজন করা হয়েছে ইলিশ প্রজনন উৎসবের। সাতদিন ব্যাপী এ উৎসবে জেলেদের নিয়ে পানিতে হ্যান্ডবল, জেলে পরিবারের শিশুদের নিয়ে চিত্রাঙ্কন, বিতর্ক এবং নারীদের ছিল নকশীকাথা সেলাই প্রতিযোগিতা। কলাপাড়া সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, ওয়ার্ল্ড ফিস ও মৎস্য অধিদপ্তরের যৌথ আয়োজনের এ উৎসবকে ছিল জেলেদের মধ্যে এক উৎসবমুখর পরিবেশ। সারা বছর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সমুদ্রে মাছ শিকারী জেলেদের অনন্দদানের পাশাপাশি ইলিশ প্রজনন মৌসুমে মাছ শিকারের কুফল জেলে সামনে তুরে ধরা যাচ্ছে। ফলে তারাও সচেতন হচ্ছে।

তবে প্রজনন মৌসুমে প্রতিবেশী দেশের জেলেদের অবৈধ অনুপ্রবেশ বন্ধসহ জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের সহযোগীতা আরো বাড়ানোর দাবী করেছেন মহিপুর মৎস আরৎদার মালিক সমিতির সভাপতি ও  মহিপুর-আলিপুর বরফ কল মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক ফজলু গাজী। তিনি বলেন, এর ফলে জেলেদের নিষিদ্ধ সময়ে মাছ ধরার প্রবনতা কমে আসবে।

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, তবে প্রজনন মৌসুমে সফল করতে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে এবং এ বছর থেকে বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলে পরিবারে ২০ কেজি করে চাল দেয়া হবে।